মৃত্যুর এক বছর পর সমাহিত হচ্ছেন থাই রাজা ভূমিবল

0
52

মৃত্যুর এক বছর পর থাইল্যান্ডের প্রয়াত জনপ্রিয় রাজা ভূমিবলের শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হচ্ছে আজ। রাজার শেষকৃত্যের প্রস্তুতি হিসেবে বিগত এক বছর ধরে ব্যয়বহুল চিতা তৈরি করা হয়েছে। শেষকৃত্য অনুষ্ঠানটি পাঁচ দিন ধরে চলবে।

গত বছর তিনি পরলোকগমন করেন। তিনি বিশ্বের সবচেয়ে বেশি সময় ধরে ক্ষমতায় থাকা একমাত্র রাজা। তার শেষকৃত্যে স্থানীয় অতিথি ছাড়াও বিশ্বের ৪০ টি দেশের অতিথি থাকবেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোকাহত হন থাইল্যান্ডের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার নাগরিকরা।

চিতাটি তৈরি করতে অগণিত স্থপতি, প্রকৌশলী, কারুশিল্পি ও সেচ্ছাসেবীর অংশ নেয়। ৫০ মিটার উঁচু ওই চিতাতে বিভিন্ন কারুকার্যের মাধ্যমে রাজার জীবদ্দশায় গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলোকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

রাজা ভূমিবলের ওই চিতাকে পৃথিবীতে প্রতিকী অর্থে স্বর্গের সাথে তুলনা করা হচ্ছে। চিতাটিতে রূপকথার কাহিনীর বর্ণনার মতো নানা কারুকার্য, থাইল্যান্ডের পৌরাণিক কাহিনী, নানা চরিত্রের মূর্তি ও প্রাণির প্রতিকৃতির আদল অলঙ্করণ করা হয়েছে।

ক্রাসমুছো রত্মাই ছিলেন রাজা ভূমিবলের চিতার প্রধান ভাস্কর। তিনি বলেন, আমাদের সব ধাপে ধাপে খুঁটিনাটি বিষয়ে গভীরভাবে মনযোগ দিতে হয়। এখানে সব প্রাণীর মূর্তি পবিত্র হিসেবে বিবেচিত হয়। চিতার প্রথম ধাপে সেগুলো রয়েছে। পশ্চিম দিকে রয়েছে ঘোড়া, উত্তর দিকে রয়েছে হাতি, দক্ষিণে গরু- এরকমভাবে সাজানো হয়েছে চিতার চারপাশে। প্রতিটি অংশের পেছনে জড়িত রয়েছে ধর্মীয় গল্প বা বিশ্বাস।

যারা রাজা ভূমিবলের শৎকার অনুষ্ঠানের জন্য আচার, ধর্মীয় গান ও নাচের অনুশীলন করা হচ্ছে বেশ কিছুদিন ধরে। ধারণা করা হচ্ছে, রাজা ভূমিবলের শৎকার অনুষ্ঠানে কয়েক লাখ থাই জনগণ আসবেন।পাশাপাশি এ অনুষ্ঠান নিয়ে বিশ্বের নানা দেশের পর্যটকদের মধ্যেও ব্যাপক আগ্রহ তৈরি হয়েছে।

ভূমিবল ছিলেন থাইল্যান্ডের খুবই জনপ্রিয় রাজা। তিনি শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বৃহত্তর রাজনৈতি স্বার্থ, থ্যাইল্যান্ডের মানুষে মানুষে সম্পর্কে গড়ে তোলাসহ ব্যক্তিগত সম্মহনী শক্তিতে ছিলেন অতুলনীয়। গত বছরের ১৩ অক্টোবর ৮৮ বছর বয়সে তিনি মারা যান।