মেক্সিকোতে নারী অধিকার কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ; আহত ৮১

0
61

মেক্সিকোতে পুলিশ ও নারী অধিকার কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার দেশটির রাজধানীর প্রধান শহর জোকালোতে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে এক পদযাত্রায় এ ঘটনা ঘটে।

বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সে দেশে নারীদের হত্যা ও লিঙ্গভিত্তিক সহিংসতা বন্ধে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে পদযাত্রা করেন নারী অধিকার কর্মীরা। প্রায় ১ হাজার নারী এবং কয়েকজন তাদের মেয়েকে নিয়ে পদযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন। এ সময় একটি মেয়েকে ‘তারা আমাকে হত্যা করেনি, কিন্তু আমি ভয়ে থাকি’ লেখা সংবলিত ব্যানার হাতে দেখা যায়। এক পর্যায়ে ভিড়ের মধ্য থেকে কয়েকজন হাতুড়ি ও লাঠি নিয়ে ন্যাশনাল প্লাজার আশপাশের কয়েকটি ধাতব লোহার বেড়া টেনে নামিয়ে ফেলেন।

পুলিশের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এ ঘটনায় ৬২ জন পুলিশ কর্মকর্তা ও ১৯ জন বেসামরিক নাগরিক আহত হয়েছেন।

প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেজ ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাডর ন্যাশনাল প্যালেসের চারপাশে ইস্পাতের ব্যারিকেড নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছিলেন। একে ‘শান্তির দেয়াল’ আখ্যা দিয়ে তার এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ভাঙচুরের হাত থেকে সরকারি সম্পত্তি রক্ষার জন্যই এটি নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট। 

তবে এই ব্যারিকেড নারীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। তাদের অভিযোগ, দেশে বিপুল সংখ্যক নারী যৌন সহিংসতার শিকার হচ্ছেন। নারীদের ওপর প্রতিদিন গড়ে ১০টি সহিংসতার ঘটনা ঘটছে। গত বছর অন্তত ৯৩৯ জন নারী নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। অথচ প্রেসিডেন্ট এ ব্যাপারে নির্বিকার রয়েছেন। এছাড়া নারীদের আন্দোলনকে তিনি বিরোধী দলের প্ররোচনা প্রসূত ও বিদেশি ধ্যান-ধারণা প্রতিক্রিয়া বলে মন্তব্য করেছেন।

দেশটির এক স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিক্ষোভকারীরা কয়েকজন পুলিশ সদস্যের ঢালে আগুন ধরিয়ে দেন। যদিও সেই আগুন তাৎক্ষণিকভাবে নেভানো হয়। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ টিয়ার গ্যাস ছোড়ে। এতে অন্তত ১৫ জন পুলিশ কর্মকর্তা ও চারজন বিক্ষোভকারী আহত হয়েছে।