যাত্রীদের যায়গা দখল করে রমরমা ব্যবসা (ভিডিও)

0
143

মাহবুব সৈকত : দরজায় করা নাড়ছে সার্বজনীন উৎসব পবিত্র ঈদ উল ফিতর। মুসলমানদের সব চেয়ে বড় ধর্মীয় এই উৎসবকে কেন্দ্র করে রাজধানী ছাড়তে শুরু করেছে দক্ষিনানঞ্চলের মানুষ।

বরাবর ই যাতায়াতে দক্ষিনাঞ্চলের যাত্রিদের প্রথম পছন্দ নৌপথ। রাজধানীর যানজট সয়ে সদরঘাট এসে নৌ পরিবহনে আরোহন করলেই দুশ্চিন্তা মুক্ত।

ভির এড়িয়ে এরই মধ্যে রাজধানী ছাড়ছেন অনেকেই। তবে সাধারন যাত্রীদের যায়গা দখল করে রমরমা ব্যবসা চালাচ্ছে একটি চক্র। যদিও যাত্রীদের নিরাপদ যাত্রা নিশ্চিতে পদক্ষেপ নেয়ার দাবী কর্তৃপক্ষের।

জীবন এবং জীবিকার প্রয়োজনে স্বজনদের ছেড়ে দুরে থাকলেও ঈদকে কেন্দ্র করে কয়েকটা দিন ছুটি মেলায় অধিকাংশ মানুষ ই চেষ্টা করেন উৎসবটা কাটুক প্রিয় জনদের সানিধ্যে।

সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোর অক্লান্ত পরিশ্রমে গত কয়েক বছরে ঢাকা নদী বন্দরে অনেকটাই ইতিবাচক পরিবেশ তৈরী হয়েছে, সু প্রসস্থ পল্টুন আর নির্ধারিত ঘাটে একই গন্তব্যের পরিবহন থাকায় হয়রানী মুক্ত হয়েছে নিয়মিত যাতায়াতকারীরা।

তবে ভিন্ন চিত্র ও ধরা পরেছে আমাদের চোখে, পল্টুনে লঞ্চ ভেরার সাথে সাথেই দখল হয়ে যাচ্ছে সাধারন যাত্রীদের জন্য নির্ধারিত যায়গা, ডেক।

সুন্দর করে তোষক বালিশ দিয়ে দখল করে পরবর্তীতে যায়গা বিক্রির নামে যাত্রীদের জিম্মি করে টাকা টাকা আদায় করছে লঞ্চের স্টাফ এবং ঘাটের একটি চক্র।

অথচ বিষটি নাকি জানেন ই না লঞ্চ পরিচালনার সাথে সম্পৃক্তরা।

তবে পল্টুন থেকে লঞ্চ অবধি যাত্রীদের নিরাপদে পৌছে দিতে তৎপর সেবা সংস্থা গুলো। সুখকর যাত্রা নিশ্চিত করতে সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে বলে দাবী করেছেন কর্তৃপক্ষ।

তবে দক্ষিনাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা সদরের নদীবন্দরের পল্টুনগুলো আরো সময় উপযোগী করার পরামর্শ লঞ্চ মালিকদের। সবার ই প্রত্যাশা সম্মিলিত প্রয়াসে নিরাপদ ভ্রমন।