যেভাবে স্মার্টফোনের দেখভাল করবেন

0
74

হালে আমরা প্রায় সবাই স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকি। বিভিন্ন ব্র্যান্ডের স্মার্টফোনগুলোর অপারেটিং সিস্টেম বিভিন্ন রকম। তবে চীন ভিত্তিক স্মার্টফোনগুলোর অপারেটিং সিস্টেম প্রায় একই রকম।

বাহারী ডিজাইন দেখে অনেকেই স্মার্টফোন কিনে থাকেন। বেশিরভাগ স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরাই কীভাবে একটি স্মার্টফোন দেখভাল করলে স্বভাবিক ব্যবহারের চেয়ে ভালো ফলাফল পাওয়া যায় তা জানেন না।যেভাবে দেখভাল করলে স্মার্টফোনটির ভালো সার্ভিস পাওয়া যাবে তা নিচে আলোচনা করা হলো-

রিস্টার্ট :

আমরা সাধারণত ডেক্সটপ বা ল্যপটপ ব্যবহার করলে তা মাঝে মাঝে রিস্টার্ট দিই। এই রিস্টার্ট এর ফলে ডেক্সটপ বা ল্যাপটপে গতি ফিরে আসে। স্মার্টফোনের বেলাতেও ঠিক একই পদ্ধতি অবলম্বন করলে এতেই পেতে পারেন অনেক বেশি গতি। যদিও, এই ট্রিকসটি একটি টেম্পোরারি অপশন, তবুও এটা বেশ কাজ করে।

আপডেট:

‘আপডেট’ এর অর্থই হচ্ছে আগের তুলনায় নতুন কিছু সুবিধা যোগ করা। আর, ফার্মওয়্যার আপডেটের মাধ্যমে স্মার্টফোন ছাড়াও প্রতিটি ডিভাইসেরই কম-বেশি ক্যাপাবিলিটি বৃদ্ধি পেয়ে থাকে। অনেক সময় হয়ত সেই পরিবর্তন আপনার চোখে পরবে না তবে এমন অনেক ত্রুটি মুক্ত করার জন্য স্মার্টফোনের ফার্মওয়্যার আপডেট করা জরুরি।

রিসেট দিন:

আপনার ব্যবহৃত স্মার্টফোনটি মাঝে মাঝে রিসেট করুন। এত আপনার স্মার্টফোনের সেটিংটি নতুন করে সেট হবে এবং কোনো অপশন হারিয়ে গেয়ে তা পুনরায় ফিরে আসবে। ‘ফ্যাক্টোরি রিসেট’ এর ফলে আপনার স্মার্ট ফোনের যাবতীয় তথ্য মুছে যাবে এজন্য প্রয়োজন হলে রিসেট এর আগে আপনার তথ্যগুলো আলাদা কারে সংরক্ষণ করে নিতে পারেন।

স্টোরেজ চেক:

প্রতিটি স্মার্টফোনেই নির্ধারিত পরিমানে স্টোরেজ ক্যাপাসিটি থাকে। এই ক্যাপাসিটি পূর্ণ হলে ফোনের গতি কমে আসে। এজন্য, আপনি মাঝে মাঝে আপনার ফোনে অব্যবহূত গেমস, অ্যাপলিকেশন, মিডিয়া ফাইলগুলো এক্সটারনাল মেমোরিতে স্থানান্তর করতে পারেন।এতে আপনার ফোনের গতি অনেক বেড়ে যাবে।

অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস মুছা: 

অনেক সময় আমারা ফেসবুক প্রোমোশন বা গুগল-প্লে স্টোর থেকে অজান্তেই ইনস্টল করি অপ্রোয়জনীয় অনেক অ্যাপস। অনেক বেশি অ্যাপস ইনস্টল করলে স্মার্টফোনের র্যাম ও স্টোরেজ দুইটাই অধিক পরিমাণে ব্লক হয়ে থাকে। র‌্যাম যত বেশি ফ্রি রাখতে পারবেন ততোই আপনার স্মার্টফোনটি ফ্রি থাকবে এবং গতি বেশি থাকবে। এজন্য অব্যবহৃত অ্যাপগুলো খুব দ্রুত রিমুভ করে ফেলুন।