সাইদুর রহমান আবির:

সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক এবং ব্যবসায়িক প্রচার প্রচারণায় রং বেরংয়ের পোষ্টারে সয়লাব পুরো রাজধানী। এতে নষ্ট হচ্ছে নগরীর সৌন্দর্য, পাশাপাশি ক্ষুন্ন হচ্ছে দেশের ভাবমূর্তি।

পোষ্টার লাগানোর অনিয়ন্ত্রিত এই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সিটি কর্পোরেশন নিয়েছে নতুন উদ্যোগ। আর তা হল সিটি কর্পোরেশন থেকে নির্ধারিত ৫২ টি স্থানের বাইরে পোষ্টার লাগালে গুণতে হবে জরিমানা, যেতে হবে কারাগারে।  এ নিয়ে এবারের মাই সার্চ।

বাংলাদেশের ইতিহাসে এক সময় দেখা যেত ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধ ৫২ র ভাষা আন্দোলন এবং পরবর্তী যেকোন সংকট থেকে জাতিকে মুক্ত করতে আন্দোলনের অংশ হিসেবে ব্যবহার হতো পোষ্টার ব্যানার এবং ফেষ্টুন।

কালের পরিক্রমায় সেই চিত্র আজ কোথায় গিয়ে দাঁড়িয়েছে। এখন আর জাতির জন্য নয়, পোষ্টার ব্যবহার করা হয় ব্যক্তি ও পণ্যের প্রচারে। রাজধানী ঢাকার অলিগলির সর্বস্তরে সয়লাব রং বেরংয়ের এসব পোষ্টারে।

যাতে করে নষ্ট হচ্ছে রাজধানীর সৌন্দর্য। পোষ্টারের কারণে ভবনের রং এমনকি কোন ভবন কোনটি তা বুঝতে পারও কষ্টকর।

রিপোর্টার: সাইদুর রহমান আবির

অনিয়ন্ত্রিত এই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সিটি কর্পোরেশন নিয়েছে নতুন পদক্ষেপ। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ৫২ টি স্থান নির্ধারণ করেছে পোষ্টার লাগানোর জন্য, যাতে বসানো হবে সিটি কর্পোরেশনের নির্ধারিত বোর্ড। আর এসব তথ্য জানালেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক।

তিনি বলেন, রাজধানীকে সুন্দর রাখতে সিটি করপোরেশন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই সিদ্ধান্তের বাইরে কোনো পোষ্টার লাগাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংশ্লিষ্ট বিভাগের প্রধান এই কর্মকর্তা আরো জানান, সিটি কর্পোরেশনের এই নিয়মের বাইরে গেলে রয়েছে জেল জরিমানার বিধান।