রাশিয়া ও ইরানের সন্দেহজনক কিছু একাউন্ট বন্ধ করেছ ফেসবুক ও টুইটার

0
43

সন্দেহজনক ও বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে ইরান ও রাাশিয়ার কয়েক শ অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে ফেসবুক ও টুইটার।  ফেসবুক ও টুইটার কর্তৃপক্ষ বলেছে, অযৌক্তিক ও নানা অসৎ উদ্দেশ্যে এসব অ্যাকাউন্ট পরিচালনা করা হচ্ছিল।

ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ বলেছেন, ৬৫০টির বেশি পেজ ও গ্রুপ বিভ্রান্তিকর বলে শনাক্ত করে তা বাদ দেওয়া হয়েছে।

টুইটার কর্তৃপক্ষ বলেছে, তারা ইরান-সংশ্লিষ্ট ২৮৪টি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করেছে। আজ বুধবার বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

ফেসবুকের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘আমরা এ ধরনের আচরণ বন্ধ করে দিয়েছি। কারণ, আমরা চাই মানুষ যার সঙ্গে যুক্ত হবে, তার ওপর বিশ্বাস রাখুক। তবে তদন্ত এখনো চলছে। মধ্যপ্রাচ্য, লাতিন আমেরিকা, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাজ্যে বিভিন্ন ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান লক্ষ্য করে ওই ক্যাম্পেইন চালানো হয়।’

সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ফায়ারআইয়ের প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে ওই ব্যবস্থা নিয়েছে ফেসবুক ও টুইটার। ইরান থেকে বিভিন্ন বিষয়ে ওই অ্যাকাউন্টগুলোর মাধ্যমে অপপ্রচার চালানো হচ্ছিল।

এর আগে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থার পক্ষ থেকে যেসব অ্যাকাউন্ট রাশিয়ার গোয়েন্দাদের বলে চিহ্নিত করা হয়, সেগুলোও বাদ দিয়েছে ফেসবুক। ফেসবুক বলেছে, তাদের তদন্তের ফল যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য সরকারকে জানিয়েছে তারা।

টুইটারের পক্ষ থেকে এ উদ্যোগকে বলা হচ্ছে ‘কো-অর্ডিনেটেড ম্যানিপুলেশন’।

ফায়ার আইয়ের বিশেষজ্ঞরা বলেন, গত বছরের শেষ দিকে এ অপপ্রচার কর্মসূচি শুরু হয়, যা এ মাসজুড়ে চলছিল।

তবে এসব কর্মসূচি যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যবর্তী নির্বাচনে প্রভাব ফেলার উদ্দেশ্য তৈরি করা হয়নি।