লম্বা হাতের কারিশমায় লাইনে না দাঁড়িয়েও পাওয়া যায় টিকিট

0
157

আবু সাঈদ অপু : ঈদ আসলেই টিকিট পাওয়ার আশায় হুমড়ি খেয়ে পড়ে টিকিট প্রত্যাশীরা। যে কোন মূল্যে পেতে হবে টিকিট; আর ছুটতে হবে নিজ ঘরে। তবে প্রত্যাশা আর প্রাপ্তিতে খানিকটা বিচ্যুতি ঘটায় কিছু সংখ্যক মানুষ। লাইনে না দাড়িয়েও কিভাবে আর কেমন করে মিলছে টিকিট।

টানা ৩ দিনের অনুসন্ধানে সেই অভিজ্ঞতাই এবার তুলে ধরা হয়েছে ঘটনার অন্তরালের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে।

দীর্ঘ প্রতিক্ষা আর ধৈর্যের পরীক্ষায় নিজেকে সামলিয়ে নিয়ে সামছুল আলম নামের এক ব্যক্তি টানা ১০ ঘন্টা অপেক্ষার পর একটি টিকিট পেয়েছে। তার আনন্দ একটাই শত কষ্ট হলেও ঈদের খুশির দিনটি কাটাতে পারবেন পরিবার পরিজনের সাথে।

এমন টিকিট প্রাপ্তির আনন্দ রয়েছে অনেকেরই। পাশপাশি রয়েছে ভোগান্তি আর অব্যস্থাপনার গল্পও। বিশেষ করে নারীদের অভিযোগ ছিলো রেলকর্তৃপক্ষের দিকে।

পরিস্থিতি যখন এই তখন কর্তৃপক্ষ কি বলছেন ?

আইনশৃঙ্খলার দায়িত্বে নিয়োজিত থাকা কর্তাদের গতিবিধিও অনেকটা সন্দেহজনক। এছাড়াও ছাত্র সেজে টিকিট ক্রয় করে কালোবাজারে বিক্রির সময় একজনকে আটক করেছে রেলওয়ে পুলিশ।

আর তাই আমরাও এবার দিতে চাই ধৈয্যের পরীক্ষা। পরিচয় গোপন রেখে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়ানো, ঘন্টা দুয়েক অপেক্ষার পর পাওয়া গেল কালোবাজারীদের বেশ ক’জন সদস্যকে। কথা হলো বিনিময় হলো ফোন নম্বর। টিকিট পাইয়ে দিবেন ঠিকেই; তবে সেজন্য গুনতে হবে বাড়তি ৫০০ টাকা।

ঘটনার অন্তরালে টিম তাদের শর্তে রাজী হয়ে গেল। টোকাই নিশান না এসে টিকিট নিয়ে অপেক্ষা করছেন সুমন। আমরাও গেলাম তার কাছে। তার পরের গল্পটা দেখুন ভিডিওতে।