লাইফ সাপোর্টে চিত্রনায়ক শাহীন আলম

0
335

ঢালিউড অভিনয়শিল্পী শাহীন আলমের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। দীর্ঘদিন ধরে কিডনি ও ডায়াবেটিস রোগে ভুগছিলেন তিনি। সম্প্রতি তার শরীর বেশি খারাপ হলে রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার থেকে তাঁকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে।

চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে এই অভিনেতার ছেলে ফাহিম নুর জানান, প্রথম দিকে ঠিকমতো ডায়ালাইসিস না হওয়ায় এই অভিনেতার অবস্থা এখন সংকটাপন্ন।

ফাহিম জানান, তাঁর বাবার কিডনিতে আগে থেকে জটিল সমস্যা ছিল। সে জন্য নিয়মিত তাঁকে ডায়ালাইসিস করানো হতো। সম্প্রতি একটি হাসপাতালে ডায়ালাইসিস করানোর জন্য ভর্তি করানো হয়। সেখানে ৪ ঘণ্টা করে ডায়ালাইসিস করানোর পরও শারীরিক কোনো উন্নতি হচ্ছিল না। পরে তাঁকে পুরান ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁকে ডায়ালাইসিস করানো হয়। এর মধ্যে অভিনেতা শাহিন আলমের শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে দ্রুত লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। তাঁর অবস্থা এখনো আশঙ্কাজনক।

এই পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সহযোগিতার আকুল আবেদন জানিয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে শাহীন আলমের একমাত্র ছেলে ফাহিম নূর আলম জানান, আমার বাবার চিকিৎসার জন্য প্রতিদিন এক লাখের বেশি খরচ হচ্ছে। যেহেতু তিনি স্বনামধন্য একজন চলচ্চিত্র শিল্পী ছিলেন। আশা করবো এই মূহুর্তে প্রধানমন্ত্রীর আমাদের পাশে থাকবেন। আর্থিকভাবে সাহায্য করার আবেদন করছি। আমার বাবাকে আরও অনেক দিন বাঁচিয়ে রাখতে চাই। সবাই দোয়া করবেন।

উল্লেখ্য, ১৯৮৬ সালের এফডিসির নতুন মুখের সন্ধানের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন শাহীন আলম। তার অভিনীত প্রথম সিনেমা ‘মায়ের কান্না’। এটি ১৯৯১ সালে মুক্তি পায়। এর পরে বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি।

শাহীন আলম ঘাটের মাঝি, এক পলকে, গরিবের সংসার, তেজী, চাঁদাবাজ, প্রেম প্রতিশোধ, টাইগার, রাগ-অনুরাগ, দাগী সন্তান, বাঘা-বাঘিনী, আলিফ লায়লা, স্বপ্নের নায়ক, আঞ্জুমান, অজানা শত্রু, দেশদ্রোহী, প্রেম দিওয়ানা, আমার মা, পাগলা বাবুল, শক্তির লড়াই, দলপতি, পাপী সন্তান, ঢাকাইয়া মাস্তান, বিগবস, বাবা, বাঘের বাচ্চা, বিদ্রোহী সালাউদ্দিনসহ বহু সিনেমায় অভিনয় করেছেন।