লাশ নেই তো আয়ও নেই রেলওয়ে ডোমদের

0
162

সাইদুর রহমান আবির:

সরকারি কাজ করলেও তাদের নেই কোন নিয়োগ। কাজ চলে লাশের হিসেবে, যে কয়টা লাশ সে অনুযায়ী আয়। লাশ নেই তো আয়ও নেই। আর তার বিল উঠাতেও দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হয় মাসের পর মাস।

অন্যদিকে অস্থায়ীভাবে কাজ করা বাংলাদেশ রেলওয়ের ডোমদের নেই কোন সরকারি সুযোগ সুবিধা। স্থায়ী ডোম নিয়োগের প্রশ্নে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক পর্যায়ক্রমে রেলওয়ের সব সমস্যা সমাধানে সরকার আন্তরিক বলে জানান। এ নিয়ে এবারের মাই সার্চ।

রিপোর্টার: সাইদুর রহমান আবির

দেশের যোগাযোগ খাতগুলোর অন্যতম সরকার পরিচালিত বাংলাদেশ রেলওয়ে। দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত এবং প্রতিবেশী ভরতের সাথে সংযোগ রাখতে প্রায় ৩ হাজার কিলোমিটার সড়কে ৩৩৫টি রেল চলাচল করছে।

দায়িত্বরতদের অবহেলা, আবহাওয়া এবং অবকাঠামোগত দুর্বলতাসহ বিভিন্ন কারণে প্রতিনিয়তই ঘটছে রেল দূর্ঘটনা। এক পরিসংখ্যাণে দেখা গেছে উপমহাদশের মধ্যে রেল দূর্ঘটনায় বাংলাদেশ শীর্ষে।

রেল দূর্ঘটনার শিকার মরদেহগুলো নিয়ে যে ডোমঘরে কাটা হয়, সেই ডোমঘরের চিত্র। রেলে কাটা পড়া লাশগুলো ডোমঘরে এনে প্রাথমিক প্রক্রিয়া শেষে পাঠানো হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

কমলাপুর রেলস্টেশনের ডোমঘরে লাশ কাটছেন কিশোররা, এখানে নেই কোন স্থায়ী নিয়োগ পাওয়া ডোম।অস্থায়ীভাবে লাশ কাটার দায়িত্বে থাকা এদের রয়েছে নানা অভিযোগ। বিল পাবে না এমন ভয়ে ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি নন তারা। কৌশলে রেকর্ড করা হয় তাদের কথা।

পর্যায়ক্রমে রেলওয়ের সব সমস্যা সমাধান করা হচ্ছে বলে জানান রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক। ৪৪টি প্রকল্প প্রক্রিয়াধীন রয়েছে রেলের উন্নয়নে। চলাচলের ব্যবস্থার আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। চলমান প্রকল্প শেষ হলেই যুগান্তকারী হবে বাংলাদেশ রেলওয়ে জানান রেলমন্ত্রী।