শিশু গণধর্ষণ ও হত্যা নিয়ে সরব ভারতের রুপালি জগৎ

0
279

কাঠুয়া গণধর্ষণ এবং খুন নিয়ে সরব রুপালি জগৎ। তাঁদের সঙ্গে সংহতি জানালেন ক্রীড়াবিদদের একাংশও। কাঠুয়ায় আট বছরের ছোট্ট মেয়েটিকে যেভাবে নির্যাতন চালিয়ে খুন করা হয়েছে, তা নিয়ে গত ক’দিন ধরেই উত্তপ্ত গোটা ভারত।

প্রথম দিকে চুপ থাকলেও গতকাল অভিনেত্রী সোনম কাপূর টুইটারে লেখেন, ভুয়া ভারতীয় এবং ভুয়া হিন্দুদের জন্য আমি লজ্জিত, হতভম্ব। আমার দেশে এমনটা হতে পারে, বিশ্বাস হচ্ছে না!

অভিনেতা বরুণ ধাওয়ান টুইট করেন, ছোট্ট শিশুটির বিচারের জন্য আমাদের সকলকে লড়তে হবে। এই ঘটনা বারবার হতে দেওয়া যায় না।

বরুণের সুরেই গর্জে উঠেছেন আলিয়া ভাট। তাঁর মন্তব্য, বিশ্বাসই করতে পারছি না এমনটা হতে পারে! অপরাধীরা শাস্তি পাবেই আশাবাদী আলিয়া।

চুপ থাকেননি অানুষ্কা শর্মাও। টুইটারে দোষীদের কঠোর সাজা চেয়ে সরব তিনি। বিচার চেয়ে শিশুটির পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন সঞ্জয় দত্তও।

পাশাপাশিই উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ের ঘটনাকে জুড়ে জাভেদ আখতারের টুইট, উন্নাও এবং কাঠুয়ার ধর্ষণকারী এবং তাদের যারা বাঁচাতে চায়, তাঁদের বিরুদ্ধে সকলকে গর্জে উঠতে হবে।

একই ভাবে মুখ খুলেছেন রীতেশ দেশমুখ, অনিল কাপূর, কঙ্কনা সেনশর্মাও। প্রতিবাদের সুর শোনা যায় ছে ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর, টেনিস তারকা সানিয়া মির্জার মতো অনেকের সুরেই।

তবে প্রতিবাদের এই সুরে বীরেন্দ্র সহবাগের গলা মেলানোকে অনেকেই তাৎপর্যপূর্ণ বলছেন। সহবাগের একাধিক টুইটের পেছনে গেরুয়া রং দেখেছেন বিরোধীরা। সেই সহবাগ এবার মেয়েটির উপর অত্যাচারকে ‘মনুষ্যত্বের খুন’ বলে চিহ্নিত করেছেন।

কাঠুয়া এবং উন্নাওয়ের ঘটনার প্রতিবাদে টুইটারে তৈরি হয়েছে নতুন পেজও। হ্যাশট্যাগ জাস্টিস ফর আসিফা, হ্যাশট্যাগ উন্নাও, হ্যাশট্যাগ কাঠুয়া পেজে নিন্দায় সরব প্রতিবাদীরা।

অন্যদিকে, কাঠুয়া ধর্ষণ কাণ্ডে জড়িত অভিযুক্তদের সমর্থন জানানোয় জম্মু ও কাশ্মীরের দুই বিজেপি নেতা চন্দ্র প্রকাশ গঙ্গা ও লাল সিং চাপের মুখে পড়েন ৷ মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতির নির্দেশে মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তাফাও দেন এই দুই মন্ত্রী ৷