সব রেকর্ড ভাঙার পথে ‘সঞ্জু’

0
163

সাদিয়া আফরিন:

‘আমার আগামী ছবি সঞ্জয় দত্তের বায়োপিক’। হিরানির এমন ঘোষণার পরই হইচই পড়েছিল সিনে টু দর্শক মহলে। মাঝে মাঝে পাপরাজিৎদের ক্যামেরায় ধরা পড়া, সিনে সঞ্জয়ের ছবি উস্কে দিয়েছে সেই গুঞ্জন।

তবে টিজার ও ট্রেলার মুক্তির পর ভেঙেছে ধৈর্য্যের বাঁধ। সবাই দিন গুনছিল মুক্তির দিনটির। অবশেষে মুক্তি পেয়েছে ‘সঞ্জু’। মুক্তি পেতেই বক্স অফিসে জাঁকিয়ে বসেছে ছবিটি৷

নিন্দুকেরা বলেছিলেন প্রথম কয়েকদিনই ভালো ব্যবসা করবে মুভিটি ৷ এক সপ্তাহ পরই মুখ থুবড়ে পড়বে বক্স অফিসে ৷ বক্স অফিসের কিং সালমান খানের সঙ্গে টক্করে টিকতে পারবে না রণবীর ৷ সেসব ধারণা ভুল প্রমাণ করে সেরার সেরা শিরোপা নিয়ে বক্স অফিসে সুপারহিট ‘সঞ্জু’৷

ইতিমধ্যেই গোটা বিশ্বে ৫০০ কোটি আয় করে ফেলেছে ‘সঞ্জু’ ৷ ট্রেড অ্যানালিস্ট তরন আদর্শ ট্যুইট করে ‘সঞ্জু’র কালেকশন সবার সামনে এনেছেন ৷ প্রথমদিন থেকেই ছক্কা মারছে এই ফিল্ম ৷ পাশাপাশি রণবীরের কেরিয়রে এই মুভি টার্নিং পয়েন্ট হয়ে দাঁড়িয়েছে ৷

ছবির ইউএসপি রণবীরের নানান লুক নয়, তাঁর গলার স্বর, হাবভাব, চালচলন। তবে শুধু সিনে সঞ্জয় নয়! সঙ্গে খাসতা, চুরমুড়ে সঞ্জু বাবা গসিপ। ঝাঁ চকচকে গ্ল্যামারের দুনিয়া থেকে গরাদের পেছনের অন্ধকার জগত!

সফলতা, প্রেম, ব্যর্থতা, ফের ঘুরে দাঁড়ানও-বর্ণময় সঞ্জয়ের জীবন। যাতে রয়েছে বিনোদনের সব রশদই। আর সেই নিয়ে পর্দায় কাহিনি বুঁনেছেন রাজকুমার হিরানি।

শুরু থেকেই সঞ্জয় দত্তের বায়োপিক নিয়ে দর্শকদের মধ্যে উত্তেজনা উন্মাদনা তুঙ্গে। প্রথমত, সঞ্জু বাবার কন্ট্রোভার্শিয়াল লাইফ তার ওপর রণবীর কাপুরের মতো অভিনেতা সঞ্জয়ের চরিত্রে ৷ সঙ্গে হেভিওয়েট কাস্টিং ৷ সব মিলে মিশে দর্শকের কাছে হিরানির কাছে এই ছবি ছিল বেশ ইন্টারেস্টিং প্রজেক্ট।

মাতাল, ড্রাগ অ্যাডিক্ট, ক্যারেক্টারলেস, কোনও মন্তব্যেই আপত্তি নেই ৷ পাবন্দি একটি শব্দে, ‘আতঙ্কবাদী’ ৷ সেই এক শব্দ যা ছাড়কার করে রেখে দিয়েছিল সঞ্জয় দত্তের জীবন ৷ এই একটা শব্দের জেরে বলিউড ইন্ডাস্ট্রি থেকে ক্রমশ বয়কট করে দেওয়া হয় তাঁকে ৷ পরপর ১২ টা ফ্লপ দিলেন বক্স অফিসে ৷

ইন্টারোগেশন, জেল, আন্ডারওয়ার্ল্ড ৷ এই তিনটে জিনিস অভিনেতাকে যেন আষ্টে পৃষ্টে বেঁধে রেখেছিল৷ সঞ্জুর আপনজনরা ভেবেছিলেন, “আর বোধহয় ‘বাবা’র ইন্ডাস্ট্রিতে ফেরা হল না৷”

অন্যদিকে নিন্দুকরা মহানন্দে পার্টিতে সঞ্জয় দত্তের ব্যর্থতাকে সেলিব্রেট করতে ব্যস্ত৷ তবে জেলে বেশ খানিকটা সময় কাটাবার পর সকলের সমালোচনাকে ছাঁপিয়ে, জেল থেকে বেরিয়ে হয়ে উঠলেন সকলের ‘মুন্নাভাই’৷

প্রতিটি ঘটনার টুকরো টুকরো অংশ নিয়ে তৈরি হয়েছিল ট্রেলার৷ যা মুক্তি পেতেই হইচই পড়ে গিয়েছিল দর্শমহলে ৷

সঞ্জয় দত্তের স্ত্রী মান্যেতার চরিত্রে থাকছেন দিয়া মিরজা৷ পারেশ রাওয়াল এবং মনিশা কইরালা অভিনয় করছেন সুনীল দত্ত ও নার্গিস দত্ত হিসেবে৷ অনুষ্কা শর্মা রয়েছেন এক সাংবাদিকের ভূমিকায় ৷

এছাডা় গুরুত্বপূর্ণ রোলে রয়েছেন বোমান ইরানি, জিম সর্ভ, সোনম কাপুর, ভিকি কৌশল৷ রণবীর ছাড়াও ভিকি কৌশলের প্রশংসায় পঞ্চমুখ গোটা ইন্ডাস্ট্রি৷ ভিকি যে ভালো অভিনেতা তা সকলেই জানেন, কিন্তু প্রতিটি ছবিতে নিজেকে বারবার ভেঙে নতুন করে গড়ে তোলেন তিনি৷ সেই প্রতিভায় মুগ্ধ সিনেপ্রেমীরা৷