সরকার পতনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে হুঁশিয়ারি বিএনপির

0
85

মাহবুব সৈকত:

সরকার পতনের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে আন্দোলনের প্রস্তুুতি নিতে নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দিয়েছেন বিএনপি শীর্ষ নেতারা।

রাজধানীতে দলটির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকীর আলোচনা সভায় এ নির্দেশনা দেন তারা। আগামী নির্বাচন বেগম জিয়াকে বাইরে রেখে করতে দেয়া হবে না বলেও জানান তারা।

দলের প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৭ তম শাহাদাত বার্ষির্কী উপলক্ষে রমনা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনিষ্টিটিউশনে আলোচনা সভার আয়োজন করে বিএনপি।

আদালতের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা যাবে না উল্লেখ করে আন্দোলনের প্রস্তুুতি নিতে নেতা কর্মীদের নির্দেশ দেন শীর্ষ নেতারা।

আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে বেশ কিছু দাবী তুলে ধরেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। খালেদা জিয়াকে ছাড়া নির্বাচন হবে না উল্লেখ করেন মির্জা ফখরুল।

তিনি বলেন, তাকে মুক্ত করতে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। এ জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। যে কমিশন সরকারের ধমক খেয়ে আইন সংশোধন করে তাদের দিয়ে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়।

এই কমিশন বাতিল করে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠন করতে হবে। অবিলম্বে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে সংসদ ভেঙ্গে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। মানুষের অধিকার ফিরিয়ে আনতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান তিনি।

এ সময় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা যেভাবে স্লোগান দিচ্ছেন জেলের জেলের তালা ভাঙবো নেত্রীকে উদ্ধার করবো। সেই স্লোগান বাস্তবায়নের জন্য আন্দোলন করার প্রস্তুতি নিতে হবে।

এ সময় বিএনপির আরেক স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, আইনের মাধ্যমে বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করা সম্ভব নয়। তাকে বের করার জন্য সরকারের পতন ঘটাতে হবে। স্বেরাচারি সরকারের পতনের মাধ্যমেই নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা যাবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে ছাড়া কোনো জাতীয় নির্বাচন হতে দেওয়া হবে না।

মাদক নির্মূলের নামে বিনা বিচারে মানুষ হত্যা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন দলটির নেতারা। আলোচনা সভায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব) হাফিজ উদ্দিন। বিএনপির স্থায়ী কমিটির নজরুল ইসলাম খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়সহ বিভিন্ন স্থরের নেতা কর্মীরা অংশ নেন।