মিয়ানমারের উচিৎ বাংলাদেশ থেকে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি শিখা: প্রধানমন্ত্রী

0
85

ধর্মীয় সম্প্রীতির উৎকৃষ্ট উদাহরণ বাংলাদেশ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন মিয়ানমারের উচিৎ এদেশ থেকে শিক্ষা নেয়া।

শুভ বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে সন্ধ্যায় গণভবনে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানে একথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। যোগ্যতা অনুযায়ী ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে প্রত্যেক নাগরিক তাদের অধিকার পাচ্ছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আপনারা দেখেছেন মিয়ানমার কীভাবে রোহিঙ্গাদের ওপর অমানবিকভাবে অত্যাচার, নির্যাতন করেছেন। অন্তত আমরা এতটুকু দাবি করতে পারি যে, আমরা তাদেরকে আশ্রয় দেয়নি সেই সাথে ওই খানে (কক্সবাজার) কোন রকমের সংঘর্ষ বা সহিংসতা না হয়।

সেই ব্যাপারেও আমরা যথাযথ ব্যবস্থা করেছি। কিন্তু আমরা (রোহিঙ্গা) তাদেরকে আশ্রয় দিয়েছি মানবিক কারণে। আবার প্রতিবেশী দেশ হিসেবে তাদের সাথে কোন সংঘাতেও যায়নি। আমরা আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখছি। যেই কারণে সারা বিশ্বব্যাপী সবাই বাংলাদেশের প্রশংসা করছেন বলে জানান।

তিনি আরও বলেন, মিয়ানমারকে বাংলাদেশ থেকে শিক্ষা নেয়া উচিত। কীভাবে ধর্মীয় সম্প্রতি বজায় রেখে একটা রাষ্ট্র চলতে পারে? তাদের যে অধিকার আছে দেশে, জন্মভূমিতে, সেই অধিকারটাও সংরক্ষণ করা দরকার। সেই সঙ্গে সর রকমের সুযোগ সুবিধা দেয়া দরকার।