সিরাজগঞ্জ ও জামালপুরে সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

0
209

রাজিয়া সুলতানা স্মৃতি : যমুনার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সিরাজগঞ্জ ও জামালপুরে সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ও শহর রক্ষা বাঁধের বেশ কয়েকটি স্থান ভেঙে, প্রতিনিয়ত নতুন নতুন এলাকা বন্যা কবলিত হয়ে পড়ছে।এদিকে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বেড়ে বন্যার পানি ঢুকে পড়েছে গাইবান্ধা শহরেও।

জামালপুরের বাহাদুরাবাদ পয়েন্টে যমুনার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় জামালপুরের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহর রুপ নিয়েছে। পানিবন্দী হয়ে পড়েছে অন্তত ৪ লাখ মানুষ। রেল লাইনে পানি উঠায় বন্ধ হয়ে গেছে ইসলামপুর -দেওয়ানগঞ্জ রুটে ট্রেন চলাচল।

সিরাজগঞ্জের যমুনা নদীর পানি বেড়ে বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। মঙ্গলবার রাতে কাজিপুরের উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নির্মিত রিং বাধের ৬০ মিটার এলাকা ভেঙ্গে মেঘাই, নতুন মেঘাই, পাইকড়তলী, কুনকুনিয়া ও পলাশপুড়ে পানি ঢুকে পড়ে। এ সময় অন্তত ৫শতাধিক পরিবার পানি বন্দী হয়ে পড়ে।

উপজেলা প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সহযোগীতায় পানিবন্দীদের নিরাপদে সরিয়ে আনা হয়। অপরদিকে মঙ্গলবার রাতে পানি সম্পদ সচিব কবির বিন আনোয়া প্রেস ব্রিফিংয়ে গণমাধ্যকর্মীদের জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা বন্যার কারনে বাধের যে কোন দূর্যোগ ঠেকাতে প্রস্তুত রয়েছে। পাশাপাশি সরকারও বন্যা দূর্গতদের সাহায্যের জন্য পুরো প্রস্তুত রয়েছে বলেও জানান।