হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে কিংবদন্তী ক্রিকেটার কপিল দেব

0
238

হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন কিংবদন্তি ক্রিকেটার ও ১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক কপিল দেব। শুক্রবার একাধিক ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এই খবর নিশ্চিত করেছে। দিল্লির একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাকে।

হাসপাতাল সূত্রে বলা হয়েছে, তার অ্যানজিওপ্লাস্টি করা হয়েছে। ৬১ বছর বয়সী কপিল দেব এখন বিপদ মুক্ত এবং তার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইকোনমিক টাইমসের ক্রীড়া সাংবাদিক টিনা থাকারের এক টুইট বার্তায় প্রথম জানা যায় কপিল দেবের হার্ট অ্যাটাকের খবর। তবে এখনও পর্যন্ত কপিলের পরিবারের কাছ থেকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

টিনা থাকার তার টুইটারে লিখেছেন, ‘কিংবদন্তি ক্রিকেটার কপিল দেব হার্ট অ্যাটাক করেছেন। দিল্লির একটি হাসপাতালে এনজিওপ্লাস্ট করানো হয়েছে। তার দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।’

ভারতের ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট বিশ্লেষক হর্শা ভোগলের টুইট, ‘বিশাল হৃদয়ের কপিল দেবের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি। এখনো অনেক কিছু করার বাকি।’ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কিছু ভেরিফাইড অ্যাকাউন্ট থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে, কপিলের সঙ্গে সর্বশেষ সাক্ষাতে তাঁর স্বাস্থ্যহানির বিষয়টি সবার নজরে এসেছে। ওজন কমে যাচ্ছিল ‘হরিয়ানা হারিকেন’-এর।

ভারতের সাবেক কূটনীতিবিদ কে.সি সিং এ নিয়ে টুইট করেন, ‘কয়েক দিন আগে দিল্লি গলফ কোর্সে তার সঙ্গে দেখা হয়। অনেক ওজন কমেছে তার। হাতের পেশি অবশিষ্ট আছে খুব কমই। শুনলাম তিনি ডায়াবেটিস ও অন্যান্য স্বাস্থ্যগত সমস্যায় ভুগছেন। দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।’

১৯৭৮ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে অভিষেক হয় ‘হরিয়ানা হ্যারিকেন’ খ্যাত এই ক্রিকেটারের। এরপর প্রায় ১৬ বছরের ক্যারিয়ারে খেলেছেন ১৩৪ টেস্ট ও ২২৫টি ওয়ানডে ম্যাচ। তার নেতৃত্বেই ১৯৮৩ সালে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত। ১৩১ টেস্টে ৪৩৪ উইকেট নিয়েছেন তিনি। ওয়ানডেতে ২২৫ ম্যাচে নিয়েছেন ২৫৩ উইকেট। টেস্টে তাঁর রানসংখ্যা ৫২৪৮, সেঞ্চুরি ৮টি। ওয়ানডেতে ১ সেঞ্চুরিসহ ৩৭৮৩ রান করেছেন ভারতীয় কিংবদন্তি।