১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রির খবরে স্বস্তির নিঃশ্বাস নিম্ন আয়ের মানুষদের

0
58

আবু সাঈদ অপু:

আগামী মার্চ থেকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি করার খবরে কিছুটা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন নিম্ন আয়ের মানুষরা।

তারা বলছেন, এই ধরনের সাড়া জাগানো কর্মসূচির ফলে জীবিকা পরিচালনায় ব্যাপক সহযোগীতা মিলবে। আর ব্যবসায়ীরা সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলছেন, এই কর্মসূচি বাজারে কোন প্রভাব ফেলবে না।

চালের বাজারে উর্দ্ধগতি ঠেকাতে আর নিম্ন আয়ের মানুষজনকে স্বল্প মূল্যে সরবরাহ করার জন্য আগামী জন্য পহেলা মার্চ থেকে অতি দরিদ্র ৫০ লাখ পরিবারকে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি করবে সরকার। প্রতিমাসে একটি পরিবারকে সর্বোচ্চ ৩০ কেজি চাল দেয়া হবে।

খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলামের এমন বক্তব্য কতটুকু প্রভাব ফেলবে বাজারে। আর সরকারের এই কর্মসূচিকে কিভাবে দেখছেন নিম্ন আয়ের মানুষজন।

বছরে ৭ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন চাল প্রয়োজন হলেও সরকারের খাদ্যশস্য মজুত রয়েছে ১৪ লাখ ২০ হাজার মেট্রিক টন। যার মধ্যে মজুদকৃত খাদ্য শষ্যের ১০ লাখ ৪০ হাজার মেট্রিক টন চাল এবং বাকিটা গম।

সরকারের এ ধরনের উদ্যোগ চালের বাজারে কেমন প্রভাব পড়বে, তার ব্যাখ্যা দেন চাল ব্যবসায়ীরা। সরকারের এই খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর ফলে, নিম্ন আয়ের মানুষদের জীবনে স্বস্তি ফিরে আসবে, এমনটাই মনে করছেন সবাই।