১ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশশন এক্সপো

0
129

দেশে আবারও অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে সর্ববৃহৎ তথ্যপ্রযুক্তি প্রদর্শনী ‘ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো-২০২১’। রাজধানীর আগারগাঁও-এ বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের অডিটোরিয়ামে আগামী ১ এপ্রিল থেকে তিন দিনব্যাপী এই প্রদর্শনী যৌথভাবে আয়োজন করছে আইসিটি বিভাগ, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এবং বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস)। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ প্রধান অতিথি হিসেবে এই প্রদর্শনীর উদ্বোধন করবেন।

বুধবার সকাল ১১টায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই  তথ্য জানান আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।  এসময় প্রদর্শনীর বিস্তারিত তুলে ধরে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব) হোসনে আরা বেগম। প্রদর্শনীর পরিকল্পনা সম্পর্কে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনে সম্যক ধারণা দেন বিসিএস সভাপতি মো. শাহিদ-উল-মুনীর।

প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, ‘এই এক্সপো এমন একটি আয়োজন যার মাধ্যমে আমরা নতুন নতুন সম্ভাবনা উন্মোচন করতে চাই। সবাইকে নিয়ে শ্রম নির্ভর দেশ থেকে মেধা ও প্রযুক্তি নির্ভর দেশ হতে চাই। এই আয়োজনের মাধ্যমে আমরা দেশীয় উদ্যোক্তা, উদ্ভাবকদের একত্রিত করতে চাই। এই আয়োজনে পলিসি মেকারদের সঙ্গে স্টক হোল্ডারদের সেমিনার থাকবে। দেশীয় উদ্যোক্তাদের দেশি-বিদেশি উদ্ভাবক ও বিনিয়োগকারীদের কাছে তুলে ধরতে চাই।’

পলক আরো বলেন, ‘দেশে প্রযুক্তি পণ্য তৈরি হলে দেশেই তার বিশাল বাজার রয়েছে। দেশেই প্রতিবছর ১২ লাখ ল্যাপটপ কম্পিউটার, ২৫ লাখ টিভি, ৩০ লাখ ফ্রিজ এবং চার কোটির মতো ফিচার ও স্মার্টফোনের চাহিদা রয়েছে। এসব ডিভাইস যদি দেশেই উৎপাদন করা যায় তাহলে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় সম্ভব। পাশাপাশি বিশ্বের অনেক দেশ স্বল্প ব্যয়ে আমাদের থেকে পণ্য বানিয়ে নিতে পারে।’

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির (বিসিসি) সভাপতি শাহিদ উল মুনির বলেন, ‘এবারের এক্সপোতে দুই শতাধিক এক্সিবিটর অংশ নেবেন। অন্তত ৪০টি নতুন ইনোভেশন তুলে ধরা হবে। ১০টি সেমিনার আয়োজিত হবে। ১২টি ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হবে।’

বাংলাদেশ হইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, বাংলাদেশ স্টার্টআপ কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক টিনা এফ জাবিন প্রমুখ সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন।