রাকিব হাসান :

বর্তমান সরকারের ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অংশ হিসেবে দেশব্যাপী তৈরী হচ্ছে একাধিক হাইটেক পার্ক। যার ফলে কর্মসংস্থান সৃষ্টির পাশাপাশি ২০২১ সাল নাগাদ ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রপ্তানী আয় হবে বলে মনে করছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। এ সেক্টর দেশের জন্য অপার সম্ভাবনাময় খাত হিসেবে দেখছেন উদ্যোক্তারা।

বাংলাদেশর সম্ভাবনাময় সেক্টর আইসিটি। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অংশ হিসেবে এগিয়ে যাচ্ছে এই সেক্টর।

বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশের তথ্য প্রযুক্তিকে আরো যুগোযোপী করতে ৭টি বিভাগেই তৈরী করা হচ্ছে হাইটেক পার্ক।

২০০৯ সালে আইসিটি সেক্টর থেকে মাত্র ২৬মিলিয়ন ডলার আয় হতো, বর্তমানে সেই আয়ের পরিমান দাঁড়িয়েছে ৩০০ মিলিয়নে। ২০১৮সালে ১ বিলিয়ন এবং ২০২১ সাল নাগাদ তা ৫ বিলিয়ন ডলারে দাড়াবে বলে মনে করছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক।

এদিকে, সম্ভাবনাময় এই সেক্টরকে এগিয়ে নিতে সরকারের পাশাপাশি কাজ করছে বিভিন্ন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান। আইসিটি সেক্টরে শীর্ষে পৌঁছাবে এমন ৩০টি দেশের তালিকায় স্থান পেয়েছে বাংলাদেশ।

সেক্টরটিকে ঘিরে নতুন প্রজন্মের মধ্যেও রয়েছে ব্যাপক আগ্রহ উদ্দীপনা। অনেকে ইতোমধ্যে পেশা হিসবে অনেকেই বেছে নিয়েছেন আউটসোর্সিংয়ের মত প্রযুক্তি নির্ভর বিভিন্ন ক্ষেত্রকে।