৯ সেপ্টেম্বরের পর এমপিদের আর সংসদীয় ক্ষমতা থাকবে না: ওবায়দুল কাদের

0
269

সঠিক সময়ে দেশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। রবিবার দুপুরে পলাশীর মোড়ে জন্মাষ্টমী উপলক্ষে আয়োজিত র‌্যালিপূর্বক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন ও ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। এছাড়া স্থানীয় সংসদ সদস্য হাজি মো. সেলিম জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা জানান।

তিনি বলেন, যারা নির্বাচনে হেরে যাওয়ার ভয় করছে তারাই বলছে নির্বাচন হবে না। আগামী ৯ তারিখ সংসদের শেষ অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। অধিবেশন শেষ হলে এমপিদের আর সংসদীয় ক্ষমতা থাকবে না। ফলে নির্বাচনের মাঠে কোনো ধরনের প্রভাব খাটানোর সুযোগ থাকবে না; ইসির আইন অনুযায়ী চলতে হবে সবাইকে জানান তিনি।

তাই যারা সংসদ নিয়ে কথা বলছেন তাদের কথা ভিত্তিহীন।আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিএনপির জাতীয় ঐক্যের ডাকের সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, জাতীয় ঐক্যের নামে সাম্প্রদায়িক মেরুকরণ করার ডাক দিয়েছে বিএনপি।

কেউ সাম্প্রদায়িক মেরুকরণে পা দেবেন না। ওই সাম্প্রদায়িক শক্তি যদি আবার ক্ষমতায় আসতে পারে তাহলে ২০০১ সালের চেয়ে ভয়াবহ পরিবেশ সনাতন ধর্মালম্বীদের জন্য অপেক্ষা করছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এই দেশে দুই ধরনের শত্রু আছে। একটি হচ্ছে প্রকাশ্য শত্রু, আরেকটি গোপন ছদ্মবেশী শত্রু। আমি প্রকাশ্য শত্রুর চেয়ে গোপন ছদ্মবেশী শত্রুকে বেশি ভয় পাই। এদের আগামী নির্বাচনে প্রতিরোধ করতে হবে।

সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজনকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আপনাদের মনে আছে ২০০১ ও ২০০২ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর কী ভয়াবহ অত্যাচার ও নির্যাতন চালিয়েছিল।

তারা যদি আবার ক্ষমতায় আসে তাহলে আরও ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে। তাই এই অপশক্তিকে রুখে দিতে শেখ হাসিনার সরকারকে আগামী নির্বাচনে জয়ী করতে হবে। কেননা বাংলাদেশে শেখ হাসিনার সরকারই একমাত্র সংখ্যালঘু-বান্ধব সরকার।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন ও ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। এছাড়া স্থানীয় সংসদ সদস্য হাজি মো. সেলিম জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা জানান।