উত্তরাঞ্চলে নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত; চরাঞ্চল ও নিম্নাঞ্চলে আতঙ্ক

546

গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টি ও ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে লালমনিরহাটে তিস্তা, কুড়িগ্রামের ধরলা, তিস্তা, ব্রহ্মপুত্রসহ সবকটি নদ-নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী জানায়, পানি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ব্যারেজের সবগুলো গেট খুলে দেয়া হয়েছে।

সিরাজগঞ্জের যমুনা নদীর পানি দ্বিতীয় দফায় বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। গত ২৪ ঘন্টায় যমুনার হাট পয়েন্টে বিপদসীমার ৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয় পানি।

দ্বিতীয় দফায় পানি বৃদ্ধির কারণে নতুন করে চরাঞ্চল ও নিম্নাঞ্চলের মানুষের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

কয়েক দিন বিরতি দিয়ে বৃহস্পতিবার থেকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় বৃষ্টি হচ্ছে, তা আরও কয়েকদিন চলতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়া অফিস শুক্রবার গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, মৌসুমী বায়ু সক্রিয় থাকায় বাংলাদেশে বেশ বৃষ্টি হচ্ছে। আরও কয়েকদিন তা অব্যাহত থাকবে। সেই সঙ্গে উজানেও ভারি বর্ষণ চলছে। এর প্রভাব নদ-নদীর ওপরে পড়বে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের তথ্যমতে, মৌসুমী বায়ুর বর্ধিতাংশের অক্ষ ভারতের পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, হিমালয়ের পাদদেশ, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি অবস্থায় বিরাজ করছে।