শুধু প্রাচ্যের নয়, মানবিক মুল্যবোধ বিকাশের নতুন তারকা শেখ হাসিনা

343

মানিক লাল ঘোষ :

প্রতিবেশী রাষ্ট্র মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা লাখ লাখ রোহিঙ্গার জীবন রক্ষায় সীমান্ত খুলে দিয়ে শেখ হাসিনা তাঁর যে সহমর্মীতা ও সহানুভুতি দেখিয়েছেন, সে জন্য এ সপ্তাহে তাঁর চেয়ে বড় কোন হিরো চোখে পড়েনি। এ মন্তব্য বাংলাদেশী কিংবা কোন বাঙালির নয়। নয় এই উপমহাদেশের কোন ব্যাক্তির।

এ উক্তি প্রখ্যাত কলামিষ্ট অ্যালন জ্যাকবের। সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে সর্বাধিক প্রচারিত দৈনিক পত্রিকা খালিজ টাইমসে প্রকাশিত ’শেখ হাসিনা জানেন সহমর্মিতার নৈপুণ্য’ শীর্ষক প্রবন্ধে। তিনি এ বিষয়ে পাঠকের কাছে তুলে ধরেন।
এই প্রবন্ধে রোহিঙ্গা সংকটের প্রতি মানবিক আবেদনের জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে প্রাচ্যের নতুন তারকা হিসেবে অবিহিত করেছেন জ্যাকব।

জ্যাকব তার প্রবন্ধে লিখেছেন মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি যখন কন্ঠস্বর হারিয়েছেন, এমন সময় শেখ হাসিনার স্বোচ্চার হয়ে ওঠা এক বিরাট স্বস্তি। সু চি ও শেখ হাসিনা তাদের নিজ নিজ দেশের মুক্তি সংগ্রামের মহানায়কের কন্যা। দু’জনেই খুব কাছ থেকে ট্রাজেডি দেখেছেন। যদিও ফারাকটা বিশাল। মানবতা যখন বিপন্ন, তখন একজন নিছক দর্শক হয়ে থাকার পথ বেছে নিলেন, অপরজন দেখালেন অমায়িক দয়া।

শেখ হাসিনা প্রায় সাড়ে ১৬ কোটি জনসংখ্যার অধ্যুষিত ছোট্ট দেশটিতে একবারে ৪ লাখ ৩০ হাজারের বেশী রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়েছেন।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘের অধিবেশন চলাকালে শেখ হাসিনা বলেছেন আমরা ইতিমধ্যে তিন লাখ শরণার্থী পেয়েছি, কিন্তু আমাদের স্থান সংকুলানের সমস্যা থাকা স্বত্বেও আরো বেশী শরণার্থী গ্রহণের বিশাল হৃদয় আমাদের রয়েছে। জ্যাকব লিখেছেন এটা স্রেফ কোন অনুকম্পার বিষয় নয়, এতে ট্রাজিক পরিস্থিতিতে সাহস প্রদর্শিত হয়েছে।

অ্যালেন জ্যাকবের এই লেখনীর সাথে হয়তো শেখ হাসিনার রাজনৈতিক মতাদর্শ বিরোধীরা একমত নন কারণ এটাই বাস্তবতা। কিন্তু ইতিহাস সাক্ষী দেয় কি প্রেক্ষাপটে আর কি কারইে এই বিশাল হৃদয়ের পরিচয় দিয়েছেন শেখ হাসিনা? কারই তার ধমনীতে প্রবাহিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আর বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের রক্ত। যাদের হৃদয়ে ছিলো সমুদ্রের গভীরতা।

জ্যাকব বাংলাদেশী নয়, নয় বাঙালিও। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে নেই তার কোন চাওয়া-পাওয়া। তিনি যা দেখেছেন, বুঝেছেন আর মনে প্রাণে বিশ্বাস করেছেন তাই লিখেছেন। একজন বাঙালি হিসেবে জ্যাকবকে অভিনন্দন জানাই বাঙালিদের বিশাল হৃদয় আর সাহসের প্রশংসা করায়।

কারণ শেখ হাসিনার সাহস আর মানবিক হৃদয়ের বিশালতা তুলে ধরে তিনি মুলত বাঙালি জাতিকেই প্রশংসিত করেছেন। তবে তার বক্তব্যের সাথে একটু ভিন্নমত প্রকাশ করে বলতে চাই শেখ হাসিনা এখন শুধু প্রাচ্যের নতুন তারকা নয়, মানবিক মুল্যবোধ বিকাশের নতুন তারকা।