সময় হ্রাসের অন্যতম বাহন হাতিরঝিলের ওয়াটার ট্যাক্সি

13

আমিরুল মোমেনিন মানিক:

হঠাৎ করে দেখে চেনার কোনো উপায় নেই যে এটি বাংলাদেশে। এক সময়ের বেগুনবাড়ি খাল এখন হাতিঝিল নামে পরিচিতি লাভ করেছে। এর সৌন্দর্য সিডনি বা লন্ডনের চেয়ে কম নয়। যদিও দূষিত পানির জন্য কিছুটা হানিকর। সৌর্ন্দয্য ভোগ করার পাশাপাশি সহজে যাতায়াত করতে সড়ক পথে চক্রাকার বাস সার্ভিস চালুর পর হাতিরঝিল লেকে চালু রয়েছে ‘ওয়াটার ট্যাক্সি’ সেবা।

সড়ক পথের পাশাপাশি জলপথে যাত্রী সাধারণের সহজে চলাচল নিশ্চিত করতে ও হাতিরঝিলকে রাজধানীর বিনোদনের অন্যতম স্থান হিসেবে পরিণত করতে এই সেবাটি চালু করা হয়েছে। এই সেবার চালুর পর মাত্র ২০ মিনিটে রামপুরা থেকে গুলশান যাওয়া যাচ্চে।

প্রতিদিন সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত এই ট্যাক্সি চলে। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহায়তায় রাজউকের বিশেষায়িত এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হয়। ২০১৬ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস উপলক্ষে রাজধানীবাসীকে এ সার্ভিস উপহার দেয়া হয়।

এ প্রকল্প চালুর ফলে ঢাকার তেজগাঁও, গুলশান, বাড্ডা, রামপুরা, মৌচাক ও মগবাজারের এলাকার বাসিন্দাসহ এ পথ দিয়ে চলাচলকারী যাত্রীরা বিশেষ সুবিধা পাচ্ছেন। হাতিরঝিল প্রকল্পটি বাস্তবায়ন ও তদারকি করছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ‘স্পেশাল ওয়ার্কস অরগানাইজেশন’ (এসডব্লিউও)। এ প্রকল্পের অন্যতম মূল লক্ষ্য হচ্ছে বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ, জলাবদ্ধতা ও বন্যা প্রতিরোধ, ময়লা পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন, রাজধানীর যানজট নিরসন এবং শ্রীবৃদ্ধি করা।

বিস্তারিত দেখতে এই লিংকে ক্লিক করুণ: