কালজয়ী উপন্যাসিক মীর মশাররফ হোসেনের ১৭০তম জন্মবার্ষিকী আজ

5

অসংখ্য কালজয়ী উপন্যাসের রচয়িতা কথা সাহিত্যিক মীর মশাররফ হোসেনের ১৭০তম জন্মবার্ষিকী আজ। কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার লাহিনীপাড়া গ্রামে এই উপন্যাসিকের শৈশব কৈশর কেটেছে।

রয়েছে তাঁর বাস্তুভিটাসহ অসংখ্য স্মৃতিচিহ্ন। অথচ বাংলা সাহিত্যের এই প্রাণ পুরুষের সাহিত্যকর্ম নিয়ে প্রত্যাশীত গবেষণা নেই।

জমিদার দর্পণ, বিষাদসিন্ধু’র মত বিখ্যাত সব উপন্যাস যাকে আধুনিক সাহিত্য জগতে সমাদৃত করেছেন তিনি মীর মশাররফ হোসেন। আজ কালজয়ী এই উপন্যাসিকের ১৭০তম জন্মবার্ষিকী। শুভ জন্মদিন।

তাঁর সাহিত্যকর্ম তৎকালীন ভারতবর্ষে সাহিত্য বোদ্ধাদের সাংঘাতিকভাবে আলোড়িত করে। সেই কালজয়ী উপন্যাসিকের বাস্তুভিটা কুষ্টিয়ায়। ১৮৪৭ সালের ১৩ নভেম্বর কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার লাহিনীপাড়া গ্রামেই তাঁর জন্ম আর সেখানেই বেড়ে ওঠা।

কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক মো. জহির রায়হান বলেন, বাংলা সাহিত্যের এই প্রাণ পুরুষের জন্মস্থান কুষ্টিয়ায় হওয়ায় গর্বিত এই এলাকার মানুষ।

তবে ক্ষোভেরও যেন অন্ত নেই সাহিত্য প্রেমী এলাকার মানুষের। ২০০৮ সালে মীরের সাহিত্য কর্ম সংরক্ষণে মিউজিয়াম কাম পাঠাগার নির্মিত হলেও পর্যটক আকর্ষণে নেই কোন ব্যবস্থা ।

জন্ম কিংবা মৃত্যুবার্ষিকীতে দায়সারা আলোচনা আর মেলার আয়োজনেই সীমাবদ্ধ কীর্তিমান এই সাহিত্যিকের বিশাল অর্জন ।

কুষ্টিয়া সরকারী মহিলা কলেজ অধ্যাপক ড. মাসুদ রহমান মীর মশাররফ হোসেন আধুনিক বাংলা সাহিত্যের পথিকৃৎ। তাঁর স্মৃতি সংরক্ষণে কর্তৃপক্ষকে আরো উদ্যোগী হওয়ার তাগিদ দিয়েছেন।