গোপনে হেভি ওয়াটার উৎপাদন করছে ইরান

3

ইরানের আণবিক শক্তি সংস্থার প্রধানের উপদেষ্টা আলী আসগার যারেয়ান জানিয়েছেন ইরান পারমানবিক চুল্লিতে ব্যবহারের জন্য প্রয়োজনীয় হেভি ওয়াটার উৎপাদন অব্যাহত রেখেছে। ইরানের কোর্দ শহরের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

আন্তর্জাতিক চাপ উপেক্ষা করে নিজেদের পারমাণবিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান। এ ব্যাপারে দেশটির আণবিক শক্তি সংস্থা বলেছে, দেশের আরাক অঞ্চলে তৈরি হওয়া পরমাণু ঘাঁটিতে হেভি ওয়াটার উৎপাদনের প্রক্রিয়া বন্ধ করা হয়নি।

তিনি বলেন, পাশ্চাত্যের সঙ্গে পরমাণু আলোচনায় আরাকের আইআর-৪০ রিঅ্যাক্টরের হেভি ওয়াটারকে লাইট ওয়াটারে রূপান্তর করার চেষ্টা চালানো হয়েছিল। কিন্তু ইরান তা মেনে নেয়নি।

পরমাণু সমঝোতা অনুযায়ী এখন আগে সমৃদ্ধ করা জল অক্ষুণ্ন রাখার পাশাপাশি আরাক হেভি ওয়াটার রিঅ্যাক্টরকে আইআর-২০’তে রূপান্তর করা হচ্ছে। এই রিঅ্যাক্টর দিয়ে বছরে দেড় টন প্লুটোনিয়াম তেরি করা সম্ভব বলে জানান তিনি।

যারেয়ান আরও বলেন, হেভি ওয়াটারের প্রাথমিক উপাদান হচ্ছে আমাদের দেখা সাধারণ জল। বিশেষ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এটিকে হেভি ওয়াটারে রূপান্তর করা হয়। এই প্রযুক্তি বিশ্বের মাত্র কয়েকটি দেশের কাছেই রয়েছে। ইরান নিজের চাহিদা মিটিয়ে অতিরিক্ত হেভি ওয়াটার বিদেশেও রপ্তানি করতে পারবে বলেও জানান তিনি।