ডিসেম্বরে শেষ হচ্ছে ৫০ ভাগ সিএনজি চালিত অটোরিক্সার মেয়াদ

17

ডিসেম্বরে শেষ হয়ে যাচ্ছে ৫০ ভাগ সিএনজিচালিত অটোরিক্সার মেয়াদ। তবে ১৫ বছরের পুরনো এসব অটোরিক্সার মেয়াদ আবারো ৬ বছর বাড়ানোর তোড়জোড় করছে সিএনজি মালিক সমিতি।

শ্রমিকরা অবশ্য এর বিপক্ষে। তবে বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ এজন্য বুয়েট পরীক্ষার ভরসাতেই আছে, সেই পরীক্ষা করানো হবে সিএনজি অটোরিক্সা মালিকদের টাকায়।

বিআরটিএ এর তথ্য সিএনজি অটোরিক্সা চলাচল করছে ১৩ হাজার। এসব সিএনজি চালিত অটোরিক্সাই ভারত থেকে আমদানি করা হয় ২০০১ সালে। বাজাজ কোম্পানির এ অটোরিক্সাগুলো ভারতে একটি প্রদেশে ১৫ বছরের বেশি সময় ধরে চলছে, এমন খোড়া যুক্তি মালিকদের।

মালিক সমিতি তাই লোক দেখানো বুয়েট পরীক্ষা করাতে কোটি টাকা তুলেছে মালিকদের কাছ থেকে। শ্রমিকরা মনে করে, পুরনো এসব অটোরিক্সা নিয়ে চলাচল বিপদজনক।

তবে অটোরিক্সার এই জরাজীর্ণ অবস্থা নিয়ে কোন মাথাব্যথা নেই বিআরটিএ’র। কর্তৃপক্ষ অপেক্ষায় আছে মালিক সমিতির টাকায় করানো বুয়েট পরীক্ষার।

নতুন অটোরিক্সা আনতে মালিকদের খরচ পড়বে ৭/৮ লাখ টাকা। তবে ইঞ্জিন ও সিলিন্ডার বদলে ফেলতে চাচ্ছেন মালিক সমিতি, যার ফলে খরচ হবে ১ লাখ টাকা।