নেপচুনের কক্ষপথে সমুদ্রের সন্ধান, থাকতে পারে এলিয়েনও

7

এলিয়েন নিয়ে মানুষের জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। দীর্ঘ দিন ধরে এ নিয়ে গবেষণাও চলছে। আর তারই জের ধরে নাসার এক অভূতপূর্ব আবিষ্কার এলিয়েনের অস্তিত্বের সম্ভাবনা আরও খানিকটা বাড়িয়ে দিল। আমাদের সৌরজগতের মধ্যেই সমুদ্র লুকিয়ে থাকার আভাস পেলেন বিজ্ঞানীরা।

‘ডেলি মেইল’ এ প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, নেপচুনের কক্ষপথের বাইরে এক অজানা বস্তু রয়েছে। এখানকার তাপমাত্রা অত্যন্ত কম। মাইনাস ২০০ ডিগ্রিতে নেমে যায় তাপমাত্রা। সেখানে অত ঠাণ্ডায় তরল পানি থাকার সম্ভাবনা খুবই কম। তবে, বরফের স্তরের নিচে সমুদ্র লুকিয়ে রয়েছে, এমনই আভাস পাওয়া গেছে। নাসার গবেষকেরা মনে করছেন, যা ভাবা হয়েছিল, তার থেকে বেশি সময় ধরে ওইসব জায়গায় জল থাকা সম্ভব।

এ ব্যাপারে নাসার গবেষণা ইঙ্গিত দিচ্ছে, চাঁদের আকর্ষণের ফলে তৈরি হওয়া উত্তাপে সমুদ্র লুকিয়ে থাকতে পারে বহুদিন ধরে।

বিশাল বরফের চাঁইয়ের তলায় সেই সমুদ্র রয়েছে বলেই মনেকরা হচ্ছে। নেপচুন আর প্লুটোর বাইরে অর্থাৎ সৌরজগতের শেষ প্রান্তে রয়েছে সেই সমুদ্র।

এদিকে নাসার বিজ্ঞানী প্রবাল সাক্সেনা জানিয়েছেন, ওই বস্তুটি জল ও প্রাণের ধারক বলে মনে করা হচ্ছে। যদি আমাদের গবেষণা সত্যি প্রমাণিত হয় তাহলে প্রাণ থাকার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যাবে। দীর্ঘদিন ধরেই ভিনগ্রহে চলছে প্রাণের খোঁজ। এবার আরও একবার সেই গবেষণা প্রাণের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়ার দিকে একধাপ এগোল বলেই মনে করা হচ্ছে।