ইসি গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে আওয়ামী লীগের সংলাপ বিকালে

নির্বাচন কমিশন (ইসি) পুনর্গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে আজ বুধবার বিকাল ৪টায় আওয়ামী লীগের সংলাপ। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ১৯ সদস্যের প্রতিনিধি দল সংলাপে অংশ নিচ্ছেন।

জানা গেছে, রাষ্ট্রপতির সঙ্গে অনুষ্ঠেয় বৈঠকে কী কী প্রস্তাবনা দেওয়া হবে তার একটি খসড়া চূড়ান্ত করা হয়েছে। সার্চ কমিটি গঠনের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের জন্য রাষ্ট্রপতির কাছে প্রস্তাব দেবে আওয়ামী লীগ। তবে ইসি পুনর্গঠনের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতি যে সিদ্ধান্ত নিবেন তাতে একমত থাকবে দলটি।

নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন নিয়ে আওয়ামী লীগের পক্ষে প্রস্তাব ও সুপারিশমালা তৈরির জন্য প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমামকে আহ্বায়ক করে ১০ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়।

ওই কমিটির দুজন সদস্য বলেন, সংবিধানে রাষ্ট্রপতিকে যে ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে, তার প্রতি আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা রয়েছে। তাঁরা আশা করেন, গতবারের মতো সার্চ কমিটির মাধ্যমেই রাষ্ট্রপতি সবার কাছে গ্রহণযোগ্য একটি নির্বাচন কমিশন উপহার দিতে পারবেন। আগামী ফেব্রুয়ারিতে বর্তমান ইসির মেয়াদ শেষ হচ্ছে, তাই এই অল্প সময়ের মধ্যে সার্চ কমিটির মাধ্যমে ইসি গঠনই সর্বোত্তম পন্থা।

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি দলে থাকছেন— আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আবুল মাল আব্দুল মুহিত, আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, এইচ টি ইমাম, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, এ্যাম্বাসেডর মো. জমির, অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, প্রেসিডিয়াম সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, মোহাম্মদ নাসিম, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, সাহারা খাতুন, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, ডা. দীপু মনি, আইন বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মতিন খসরু ও প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

রাষ্ট্রপতির কাছে উপস্থাপিত প্রস্তাব ও সুপারিশমালা সম্পর্কে আজ সন্ধ্যায় সাড়ে ছয়টায় ধানমন্ডিতে দলটির সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন হবে। সেখানে বক্তব্য দেবেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও নির্বাচন কমিশনসংক্রান্ত প্রস্তাব ও সুপারিশমালা প্রণয়নে গঠিত কমিটির আহ্বায়ক এইচ টি ইমাম।

প্রসঙ্গত, নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ করছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। ১৮ ডিসেম্বর এ সংলাপ শুরু হয়। প্রথমদিনেই বিএনপির সঙ্গে সংলাপ করেন রাষ্ট্রপতি। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বিএনপির প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। এরপর ২০ ডিসেম্বর জাতীয় পার্টি, ২১ ডিসেম্বর লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) ও কৃষক-শ্রমিক জনতা লীগ, ২৬ ডিসেম্বর জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ), ২৭ ডিসেম্বর ওয়ার্কার্স পার্টি, ২৯ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট ও ইসলামী ঐক্য জোট, ২ জানুয়ারি জাতীয় পার্টি (মঞ্জু) এবং ৩ জানুয়ারি বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশন ও বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির (বিজেপি) সঙ্গে আলোচনা করেন রাষ্ট্রপতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com