Monday, September 27, 2021

MYTV Live

উপহারের ঘর কিছু মানুষ হাতুড়ি ও শাবল দিয়ে ভেঙে তা গণমাধ্যমে প্রচার করছে: প্রধানমন্ত্রী

মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহারের ঘর কিছু মানুষ হাতুড়ি ও শাবল দিয়ে ভেঙে তা গণমাধ্যমে প্রচার করছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, যারা এই ঘরগুলো ভেঙেছে, তাদের নামের তালিকা তাঁর কাছে রয়েছে।

বৃহস্পতিবার গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকের সূচনা বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন তিনি। দীর্ঘ প্রায় এক বছর পর আওয়ামী লীগের এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি যখন সিদ্ধান্ত নিলাম প্রত্যেকটা মানুষকে আমরা ঘর করে দেব, আমাদের দেশের কিছু মানুষ এত জঘন্য চরিত্রের, আমি কয়েকটা জায়গায় হঠাৎ দেখলাম যে ঘর ভেঙে পড়ছে। ভাঙা ছবি দেখার পরে পুরো জরিপ করালাম কোথায় কী হচ্ছে। সেখানে আমরা দেড় লাখের মতো ঘর তৈরি করে দিয়েছি। ৩০০টা ঘর বিভিন্ন এলাকায় কিছু মানুষ নিজে থেকে গিয়ে হাতুড়ি, শাবল দিয়ে সেগুলো ভেঙে ভেঙে তারপর মিডিয়ায় সেগুলোর ছবি তুলে দিচ্ছে। তাদের নামধাম তদন্ত করে বের করা হয়ে গেছে। আমার কাছে পুরো রিপোর্ট আছে। গরিবের ঘর তারা যে এভাবে ভাঙতে পারে, সেই ছবিগুলো দেখলে বোঝা যায়।’

তদন্তে নয়টি জায়গায় দুর্নীতি পাওয়া গেছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এক জায়গায় ৬০০ ঘর। সেখানে হয়তো তিন–চারটা ঘর, ওই যে প্রবল বৃষ্টি হলো, ওই জন্য মাটি ধসে কয়েকটা ঘর নষ্ট হয়েছে। মাত্র নয়টি জায়গায় আমরা পেয়েছিলাম, যেখানে কিছুটা দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে।’

আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের অধীনে ঘর নির্মাণে সবাই আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি দেখেছি যে প্রত্যেকে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছে। আমাদের ইউএনও-ডিসি সমস্ত কর্মচারী ছিল। তারা কিন্তু অনেকে এগিয়ে এসেছে এই ঘরগুলো তৈরিতে সহযোগিতা করার জন্য। যারা ইট তৈরি করে, তারাও এগিয়ে এসেছে। অল্প পয়সায় তারা ইট দিয়ে দিয়েছে। এভাবে সবার সহযোগিতা, আন্তরিকতাটাই বেশি। কিন্তু এর মধ্যে দুষ্টু বুদ্ধির কিছু, এটাই হচ্ছে সবচেয়ে কষ্টকর। যখন এটা গরিবের ঘর, সেখানে হাত দেয় কীভাবে?’

নেতাকর্মীসহ সংশ্লিষ্টদের আরো সতর্ক থাকার নির্দেশনা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যা-ই হোক, আমরা সেগুলো মোকাবেলা করেছি, তবে আমাদের নেতাকর্মীদের এ ব্যাপারে আরো সতর্ক থাকা দরকার।’

Related Articles

Stay Connected

21,980FansLike
2,956FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles