MYTV Live

কাবুলের সামরিক হাসপাতালে হামলায় তালেবানের শীর্ষ নেতা নিহত

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি সামরিক হাসপাতালে হামলায় নিহতদের মধ্যে তালেবানের একজন সিনিয়র কমান্ডার রয়েছেন।

গতকাল মঙ্গলবার কাবুলের মুহাম্মদ দাউদ খান হাসপাতালে গোলাগুলি ও বিস্ফোরণে অন্তত ১৯ জন নিহত হন। তাঁদের মধ্যে একজন হামিদুল্লাহ। তিনি তালেবানের সশস্ত্র শাখা হাক্কানি নেটওয়ার্কের একজন সদস্য। পাশাপাশি বিশেষ বাহিনী ‘বদরি কর্পসের’একজন কর্মকর্তা ছিলেন। তালেবানের হাতে আফগানিস্তানের পতনের পর এই প্রথম সংগঠনটির শীর্ষ কোনো নেতা হামলায় নিহত হলেন।

মঙ্গলবার আইএস হাসপাতালটিতে আত্মঘাতী হামলা চালায় বলে আফগান কর্মকর্তারা দাবি করেছেন। 

তালেবানের গণমাধ্যম শাখার এক কর্মকর্তা জানান, মুহাম্মদ দাউদ খান হাসপাতালে হামলা চালানো হয়েছে—এমন খবর মেলার পর হামিদুল্লাহ ঘটনাস্থলে ছুটে যান। তাঁকে থামানোর চেষ্টা করা হয়। তবে তিনি কথা শোনেননি। পরে জানা যায়, হাসপাতালে হামলাকারীদের সঙ্গে সম্মুখ লড়াইয়ে তিনি নিহত হয়েছেন।

হামলার দায় স্বীকার করে এক বিবৃতিতে আইএসের খোরাসান শাখা (আইএসকে) জানিয়েছে, হাসপাতালটিতে পাঁচটি গ্রুপ একযোগে সমন্বিত হামলা চালিয়েছে।

হামলার খবর মেলার পর হাসপাতালের ছাদে একটি হেলিকপ্টারে করে বিশেষ বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করে তালেবান। তালেবান সরকারের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেন, হামলা শুরুর ১৫ মিনিটের মধ্যেই হামলাকারীদের প্রতিহত করা হয়েছে।

Related Articles

Stay Connected

22,878FansLike
3,122FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles