MYTV Live

জাতীয় পরিষদ ভেঙে দিলেন পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সুপারিশে জাতীয় পরিষদ ভেঙে দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি।

রোববার আকস্মিক পদক্ষেপ হিসেবে প্রেসিডেন্টকে তিনি জাতীয় পরিষদ ভেঙে দেওয়ার সুপারিশ করেন।

এর আগে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব খারিজ করে দেন জাতীয় পরিষদের ডেপুটি স্পিকার কাশিম খান সুরি।

পাকিস্তান পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি বলেছেন, সরকার সংবিধান লঙ্ঘন করেছে। অনাস্থা প্রস্তাবে ভোট দিতে দেয়নি। ঐক্যবদ্ধ বিরোধী দল সংসদ ছাড়ছে না।

আমাদের আইনজীবীরা সুপ্রিম কোর্টে যাচ্ছেন।

এরপরই প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভীকে সংসদ ভেঙে দেয়ার পরামর্শ দেন ইমরান খান।

অনাস্থা প্রস্তাব নাকচের পর জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন ইমরান খান। দেশবাসীকে অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, সংসদ ভেঙে দেয়ার জন্য প্রেসিডেন্টকে প্রস্তাব পাঠিয়েছেন। আপনারা পরবর্তী নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নেন।

অনাস্থা পদক্ষেপের মাধ্যমে বিরোধীদের প্রধানমন্ত্রীকে ক্ষমতাচ্যুত করতে মোট ৩৪২ জন সংসদ সদস্যের মধ্যে অন্তত ১৭২ জনের সমর্থন প্রয়োজন ছিল। বিরোধী দলগুলো ১৭২-এর ‘ম্যাজিক’ নম্বর পেরিয়ে গিয়ে ১৭৪ জন সদস্যের সমর্থন নিশ্চিত করতে সক্ষম হয়েছে বলেও জানানো হচ্ছিল।

এমনকি খোদ ক্ষমতাসীন পিটিআইয়ের ১২ জনের বেশি ভিন্নমতাবলম্বী ছাড়াই তা সম্ভব হয়েছে বলেও জানানো হয়। আরো বলা হয়, তারা ইতোমধ্যেই প্রকাশ্যে তাদের সমর্থন প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন।

তবে ইমরান খান হাল ছাড়তে অস্বীকৃতি জানিয়েছিলেন।

শনিবার রাতে এক টিভি চ্যানেলের প্রশ্নোত্তরে ইমরান খান বলেন, শেষ মুহূর্তে কিছু চমক আসবে। তিনি শেষ বল পর্যন্ত খেলবেন।

অনাস্থা প্রস্তাবকে তিনি বিদেশিদের প্ররোচনায় দুর্নীতিগ্রস্ত বিকিয়ে যাওয়া বিরোধীদের চাল বলে আখ্যায়িত করে আসছেন। ইমরান জনগণকে এর প্রতিবাদে রাস্তায় নামারও আহ্বান জানিয়েছেন।

Related Articles

Stay Connected

22,878FansLike
3,508FollowersFollow
20,100SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles