MYTV Live

ভারতের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক তরুণ মজুমদার আর নেই

ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত পরিচালক তরুণ মজুমদার মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর। 

সোমবার কলকাতার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ১১টা ১৭ মিনিটে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

গত ১৪ জুন কিডনি ও ফুসফুসের সমস্যার কারণে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তরুণ মজুমদারকে। পরিস্থিতি মোটেই ভালো ছিল না। রোববার (৩ জুলাই) মধ্যরাত থেকে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে। জ্ঞানও ছিল না তার। ডায়ালাইসিস দরকার ছিল। কিন্তু শারীরিক অবস্থার কারণে তা সম্ভব হয়নি। ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছিল তাকে, সেখানেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন বর্ষীয়ান এই পরিচালক।

গত ২২ বছর ধরে কিডনির সমস্যায় ভুগছিলেন তরুণ মজুমদার। কিন্তু তার মধ্যেও থেমে থাকেনি তার কাজ। শারীরিক সমস্যা সামলে একের পর এক সিনেমা তৈরি করেছেন তিনি। কাজ করে গিয়েছেন নিজের মতো করে। কিন্তু চলতি বছর থেকেই শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে।

বাংলাদেশের বগুড়ায় ১৯৩১ সালের ৮ জানুয়ারি জন্মগহণ করেন তরুণ মজুমদার। বাবা বীরেন্দ্রনাথ মজুমদার ছিলেন স্বাধীনতা সংগ্রামী। তরুণের পড়াশোনা কলকাতাতেই। সেন্ট পলস্‌ ক্যাথিড্রাল মিশন কলেজ এবং স্কটিশ চার্চ কলেজের ছাত্র তরুণ পরে রসায়ন নিয়ে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। রসায়নের ছাত্র হলেও সিনেমা তৈরির ঝোঁক ছিল তরুণ মজুমদারের। তরুণের ফিল্ম জগতে পদার্পণ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা শেষ করার পরই।

শচীন মুখোপাধ্যায়, দিলীপ মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে মিলে ‘যাত্রিক’ নামে টিম তৈরি করে সিনেমা পরিচালনার কাজ শুরু করেন তিনি। এই তিন পরিচালকের প্রথম সিনেমা ‘চাওয়া পাওয়া’। ১৯৫৯ সালে এটিই তাঁর প্রথম সিনেমা পরিচালনা করা। এতে অভিনয় করেছিলেন উত্তমকুমার, সূচিত্রা সেন। এরপর ‘যাত্রিক’ নির্মাণ করে ‘কাঁচের স্বর্গ’। যা প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করে।

মোট চারটি ভারতের জাতীয় পুরস্কারজয়ী এই পরিচালক দেশটির পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত হন ১৯৯০ সালে। এ ছাড়াও, বিএফজেএ পুরস্কার এবং আনন্দলোক পুরস্কারেও সম্মানিত করা হয়েছিল পরিচালককে।

১৯৬৫ সালে ‘যাত্রিক’ থেকে বেরিয়ে আসেন তরুণ মজুমদার। একই বছর ‘আলোর পিপাসা’ এবং ‘একটুকু ভালোবাসা’ নামে দু’টি সিনেমা তৈরি করেন। তারপর থেকে একের পর এক সিনেমা উপহার দিয়েছেন এই পরিচালক। এ তালিকায় রয়েছে—‘বালিকা বধূ’, ‘কুহেলি’, ‘শ্রীমান পৃথ্বীরাজ’, ‘ফুলেশ্বরী’, ‘দাদার কীর্তি’, ‘আপন আমার আপন’, ‘গণদেবতা’, ‘চাঁদের বাড়ি’ প্রভৃতি।

Related Articles

Stay Connected

22,878FansLike
3,588FollowersFollow
20,300SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles