MYTV Live

সংবাদ সম্মেলনে এমপির হাতে পিটুনি খাওয়ার কথা অস্বীকার অধ্যক্ষের

রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনের সরকারদলীয় সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে এক কলেজ অধ্যক্ষকে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ নিয়ে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

এর মধ্যেই বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহী নগরীতে সংবাদ সম্মেলন করে এমপির হাতে পিটুনি খাওয়ার কথা অস্বীকার করেছেন গোদাগাড়ীর রাজাবাড়ী ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ সেলিম রেজা।

সংবাদ সম্মেলনে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর পাশে বসে ওই অধ্যক্ষ বলেন, ঈদের আগে গত ৭ জুলাই কয়েকজন অধ্যক্ষ-উপাধ্যক্ষ মিলে এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলাম। এসময় অধ্যক্ষ ফোরামের কমিটি গঠন ও অভ্যন্তরীণ বিষয় নিয়ে নিজেদের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক ও ধস্তাধস্তি হলে এমপি এসে নিবৃত করেন।

এসময় সাংবাদিকরা তার মুখের বামপাশের আঘাতের চিহ্ন কীভাবে হয়েছে জানতে চাইলে তিনি উত্তর দিতে পারেননি। বামহাতের আঘাতের চিহ্ন দেখতে চাইলেও দেখাতে অস্বীকৃতি জানান তিনি। 

এর আগে বুধবার রাতে নিজের ফেসবুকে এসব কথা লিখে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন ওই শিক্ষক। তবে তার মুখে কে আঘাত করেছে জানতে চাইলে তিনি কারো নাম প্রকাশ করেননি। কার সঙ্গে তার তর্ক ও হাতাহাতি হয়েছে তা জানতে চাইলেও তিনি কারো নাম প্রকাশ করেননি।

তবে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত মাটিকাটা আদর্শ কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল আওয়াল রাজু বলেন, আমার সঙ্গেই সেলিম রেজার তর্কবিতর্ক হয়। এক পর্যায়ে আমি তাকে ধাক্কা দিই। এতে সেলিম রেজাও আহত হয়েছেন। আমিও হয়েছি। পরে এমপি ফারুক চৌধুরী আমাদের থামান।

এর আগেই এমপি ফারুক চৌধুরী অভিযোগ অস্বীকার করে বক্তব্য দেন। তিনি দাবি করেন, তার বিরুদ্ধে গণমাধ্যমে এমন ভিত্তিহীন খবর আসায় তার তিন সন্তান রাগ করে বাড়ি থেকে চলে গেছেন। পারিবারিক ও রাজনৈতিকভাবে তিনি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ চক্রান্ত করে তার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করেছেন।

Related Articles

Stay Connected

22,878FansLike
3,592FollowersFollow
20,300SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles