MYTV Live

ঘর থেকে সহজে ছারপোকা তাড়ানোর উপায়

মশার মতো ছারপোকাও মানুষের রক্ত চুষে থাকে। বাসা-বাড়িতে মশার হাত থেকে কয়েল বা মশারি টানিয়ে মুক্তি পাওয়া গেলেও, ছারপোকার হাত থেকে মুক্তি পাওয়া সহজ ব্যাপার নয়।

মশারি, বালিশ ও বিছানা ছাড়াও ছারপোকার অন্যতম পছন্দের আবাসস্থল হচ্ছে সোফা এবং অন্যান্য আসবাবপত্র। মূলত অপরিষ্কার বিছানা ও অগোছালো আসবাবপত্রের কারণেই ছারপোকার উপদ্রব ঘটে। 

ছারপোকা থেকে মুক্তি পাওয়ার সহজ কিছু উপায় এখানে দেয়া হলো:

* ঘরের যে জায়গায় ছারপোকা আছে সেখানে ল্যাভেন্ডার অয়েল স্প্রে করতে হবে। প্রত্যেকদিন এটি স্প্রে করতে পারলে আরো ভালো। কয়েকদিনের মধ্যে সব ছারপোকা দূর হয়ে গেছে।

* ছারপোকা তাড়ানোর জন্য অ্যালকোহল খুব ভালো কাজ দেয়। ছারপোকা আক্রান্ত জায়গায় সামান্য অ্যালকোহল স্প্রে করা যেতে পারে। আস্তে আস্তে ঘর ছেড়ে পালাবে ছারপোকার দল।

* ছারপোকা বেশি উত্তাপ সহ্য করতে পারে না। তাই ঘরের বিছানা, তোষক, লেপ, বালিশ কয়েকদিন পরপর রোদে দিতে হবে। বিছানার চাদর অন্তত সপ্তাহে একবার পরিবর্তন করতে হবে। এছাড়াও খাটকে দেয়ালের সঙ্গে একবারে না লাগিয়ে একটু ফাঁকা রাখতে হবে।

* রোদ না থাকলে বিছানার চাদর, কুশন, বালিশ, সোফার গদি, লেপ, কম্বল বেশি তাপে সেদ্ধ করে ধুয়ে ফেলতে হবে।

* ছারপোকা তাড়াতে মাঝে মধ্যে আসবাবপত্রে কেরোসিনের প্রলেপ দিতে হবে। এতে ছারপোকা সহজেই পালাবে।

* ছারপোকা তাড়াতে ন্যাপথলিন খুব কার্যকরী। পোকাটি তাড়াতে অন্তত মাসে দু’বার ন্যাপথলিন গুঁড়ো করে বিছানাসহ উপদ্রবপ্রবণ স্থানে ছিটিয়ে দিতে হবে। ঘরে আর ছারপোকা হবে না।

* পুদিনা পাতার গন্ধ ছারপোকা সহ্য করতে পারে না। তাই যেখানে ছারপোকা বেশি সেখানে এবং বিছানা, সোফার পাশে ও বাড়ির প্রতিটি কোণেও পুদিনা পাতা রাখা যেতে পারে। চাইলে পুদিনা পাতার স্প্রেও করা যেতে পারে।

* ছারপোকা মারার আরেকটি উপায় হলো, প্রাকৃতিক কিটনাশকের ব্যবহার। তাই যেসব স্থানে ছারপোকা থাকে, যেমন- বিছানা, ঘরের কোণা, সোফা ইত্যাদিতে কিটনাশক ছিটিয়ে দিলে ছারপোকা দূর হবে।

* ছারপোকা ময়লা অপরিষ্কার জায়গায় থাকতে পছন্দ করে। ঘর যত অপরিষ্কার থাকবে, তত ছারপোকার উৎপাত বাড়বে। তাই ঘর নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে।

Related Articles

Stay Connected

22,878FansLike
3,507FollowersFollow
20,100SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles