MYTV Live

চাকরি হারালেন টুইটারের প্রধান নির্বাহী ও অর্থনৈতিক কর্মকর্তা

টুইটারের মালিক হওয়ার পরপরই শীর্ষ কর্মকর্তাদের ছাঁটাই করা শুরু করেছেন ইলন মাস্ক। শুরুতেই টুইটার প্রধান নির্বাহী পরাগ আগারওয়াল ও প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা নেদ সেগালকে বরখাস্ত করেন এই ধনকুবের।

টুইটারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ৩৭ বছর বয়সী জ্যাক ডরসি অবসরে যাওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর প্রতিষ্ঠানটির নতুন প্রধান নির্বাহী পদে দায়িত্ব পান ভারতীয় বংশোদ্ভূত পরাগ আগারওয়াল। ২০১১ সালে টুইটারে যোগ দিয়েছিলেন পরাগ। এরপর কর্মদক্ষতার বলে প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষ পদে উন্নীত হন ২০২১ সালে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইলেকট্রনিক গাড়ি নির্মাতাপ্রতিষ্ঠান টেসলার প্রধান নির্বাহী ইলন মাস্ক গত বুধবার ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের সান ফ্রানসিসকোয় টুইটারের সদর দপ্তরে যান। সেখানে যাওয়ার একটি ভিডিও তিনি টুইটারে পোস্ট করেন। এর ক্যাপশনে মজা করেই লিখেছেন, ‘আসুন, ডোবা যাক!’

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক টুইট বার্তায় মাস্ক বলেন, কেন আমি টুইটার অধিগ্রহণ করলাম সে ব্যাপারে সবাইকে জানাতে চাই। এটি আমি আরও অর্থ উপার্জনের জন্য কিনিনি। মানবতার জন্য কিনেছি।

এদিকে, নিউইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জের ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী শুক্রবার থেকে পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত টুইটারের সব ধরনের শেয়ার লেনদেন বন্ধ থাকবে বলে জানা গেছে।

এর আগে গত এপ্রিলে ৪ হাজার ৪০০ কোটি ডলারে টুইটার কেনার ঘোষণা দেন ইলন মাস্ক। স্প্যাম ও ভুয়া অ্যাকাউন্টের ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য দেয়নি টুইটার—এমন দাবি করে ৮ জুলাই চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দেন তিনি। এরপর মার্কিন এই ধনকুবেরের বিরুদ্ধে মামলা করে টুইটার।

সেই মামলার ঝামেলা এখনো কাটেনি। তিনি এই প্রতিষ্ঠান না কিনলে তাঁকে জরিমানা গুনতে হবে। আর সেই জরিমানা এড়াতেই টুইটারের সঙ্গে চুক্তি সম্পন্ন করলেন ইলন মাস্ক।

Related Articles

Stay Connected

22,878FansLike
3,587FollowersFollow
20,300SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles