MYTV Live

বিএনপি-জামায়াতের হাতে ক্ষমতা ছেড়ে দিতে পারি না; ওরা দেশকে ধ্বংস করে: ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, স্বাধীনতাবিরোধী জঙ্গিবাদী বিএনপি-জামায়াতের হাতে ক্ষমতা ছেড়ে দিতে পারি না। ওরা দেশকে ধ্বংস করে।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর গুলিস্তানের বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় এ কথা বলেন তিনি। 

তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত দেশকে ধ্বংস করে। যারা দেশকে ধ্বংস করে তারা কিভাবে রাষ্ট্র মেরামত করবে? 

ওবায়দুল কাদের বলেন, রাষ্ট্র তো মেরামত করেন শেখ হাসিনা। ওরা (বিএনপি-জামায়াত) যেটুকু ধ্বংস করেছিল সেখান থেকে রাষ্ট্রকে উন্নয়নের পথে নিয়ে গেছেন শেখ হাসিনা। 

বিএনপিকে বাংলার মাটিতে আর ক্ষমতায় আসতে দেওয়া যেতে পারে না মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, রাষ্ট্রকে মেরামত করবে? রাষ্ট্রকে আবার ক্ষমতা পেলে তারা ধ্বংস করবে। এই দেশের গণতন্ত্র বাঁচবে না, তারা ক্ষমতায় আসলে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাঁচবে না। তারা ক্ষমতায় আসলে স্বাধীনতার আদর্শ বাঁচবে না। তারা ক্ষমতায় আসলে গণতন্ত্রের বস্ত্রহানী ঘটবে। এই অপশক্তি জঙ্গিবাদের পৃষ্ঠপোষক, সাম্প্রদায়িকতার পৃষ্ঠপোষক।

‘বিএনপি নামক এই অপশক্তিকে বাংলার মাটিতে… এদের হাতে ক্ষমতা আমরা তুলে দিতে পারি না। বাংলাদেশের জনগণ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ। কী দেখাবেন আপনারা? মুখে মিথ্যাচার আর বিষোদগার। আপনাদের নেই মেট্রোরেল, নেই পদ্মা সেতু, নেই বঙ্গবন্ধু টানেল; নেই উড়াল সেতু, নেই আন্ডার পাস, নেই এক দিনে শত সেতু, কে করেছে? শেখ হাসিনা।’

এ সময় গণমাধ্যমের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের ঢাকা মহানগর দক্ষিণ এবং উত্তর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা করছে। আমি কোন কোন অনলাইনে দেখলাম যে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি দিয়েছে আওয়ামী লীগ। পাল্টাপাল্টি কেন?  ১০ জানুয়ারি তো বিএনপির হৃদয়েও নেই, চেতনাতেও নেই। ১০ জানুয়ারি তারা করেনি।

গতকাল আমাদের কেন্দ্র করেছে, আজকে মহানগর এবং অন্যান্য সংগঠন করছে। এটা আমাদের কর্মসূচি, এখানে পাল্টাপাল্টির কোনও বিষয় নেই। কার সাথে পাল্টাপাল্টি করবো। কীসের পাল্টাপাল্টি করবো। ১০ ডিসেম্বর তো এই নগরীতে বিজয় মিছিল হবে। ১০ জানুয়ারি তো এমনও কথা ছিল তারেক রহমান এসে নেতৃত্ব দেবেন। ১০ ডিসেম্বর এমনও কথা ছিল, বেগম জিয়া জেল থেকে এসে বিজয় মিছিলের নেতৃত্ব দেবেন, সরকারের পতন অনিবার্য। কী হলো? ১০ ডিসেম্বর ভুয়া, ৩০ ডিসেম্বর ভুয়া।’

আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, যারা স্বাধীনতাকে নিয়ে শেখ হাসিনার উন্নয়নকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করবে তাদের রাজপথে দাঁতভাঙা জবাব দেওয়া হবে। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণের ভোটের মাধ্যমে পঞ্চম বারের মত শেখ হাসিনাকে আবারও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত করবো।

বিএনপি নতুন করে আবার দেশে বিশৃঙ্খলা করার ষড়যন্ত্র করছে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, কোনও বিরোধী শক্তি বাংলাদেশে আর মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে পারবে না। কেউ মাথা চাড়া উঠলে আমরা তাদের কঠোরভাবে দমন করবো।

‘বিএনপির লজ্জা থাকা উচিত, তারা কী করে আবার গণতন্ত্রের কথা বলে। এই স্বাধীন দেশে বিএনপি হলো সাম্প্রদায়িক দল। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এখন বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। এখন আবার বিএনপি ষড়যন্ত্র শুরু করছে।’

Related Articles

Stay Connected

22,878FansLike
3,687FollowersFollow
20,500SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles