MYTV Live

হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার বিরুদ্ধে সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে: স্টালিন

ভারতে হিন্দি ভাষা-বিরোধী সংগ্রাম নতুন নয়। কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে হিন্দি ভাষা চাপিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলে প্রায়ই প্রতিবাদ বিক্ষোভ হয়ে থাকে। আর তারই ধারাবাহিকতায় হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার বিরুদ্ধে সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য তামিলনাড়ু।

২৫ জানুয়ারি, বুধবার রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী এই ঘোষণা দেন। ভারতীয় বার্তাসংস্থা পিটিআইয়ের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এম কে স্টালিন বুধবার বিজেপি-নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকারকে হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার জন্য অভিযুক্ত করেছেন এবং জোর দিয়ে বলেছেন, জনগণ বা রাজ্যের ওপর ভাষা চাপানোর যে কোনও প্রচেষ্টাকে প্রতিহত করবে তার ক্ষমতাসীন দল ডিএমকে।

এনডিটিভি বলছে, বুধবার ভাষা শহীদ দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক জনসভায় ভাষণ দেওয়ার সময় এম কে স্টালিন এই মন্তব্য করেন। অতীতে তামিলনাড়ু রাজ্যে হিন্দি বিরোধী আন্দোলনের অংশ হিসাবে যারা মারা গিয়েছিলেন তাদের সম্মানে শহীদ দিবসের এই জনসভা আয়োজন করা হয়।

জনসভায় এম কে স্টালিন বলেন, ‘হিন্দি চাপিয়ে দেওয়াটা’ কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন বিজেপির অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। তিনি বলেন, ‘প্রশাসন থেকে শিক্ষা পর্যন্ত ভারতে সকল ক্ষেত্রে হিন্দি চাপিয়ে দেওয়াটা বিজেপি সরকারের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে এবং তারা মনে করে তারা হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার জন্যই ক্ষমতায় এসেছে।’

তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, ‘এক জাতি, এক ধর্ম, এক নির্বাচন, একক খাবার, একক সংস্কৃতির মতো, তারা (বিজেপি) একটি ভাষা দিয়ে অন্যান্য জাতির সংস্কৃতিকে ধ্বংস করার চেষ্টা করছে।’

হিন্দি আরোপের বিরুদ্ধে ২০২২ সালের অক্টোবরে রাজ্য বিধানসভার প্রস্তাবের কথা স্মরণ করে এম কে স্টালিন বলেন, ‘হিন্দি আরোপের বিরুদ্ধে আমাদের সংগ্রাম অব্যাহত থাকবে। তামিলকে রক্ষা করার জন্য আমাদের প্রচেষ্টা চিরকাল অব্যাহত থাকবে।’

তিনি অভিযোগ করেন, ‘বিজেপি সরকার নির্লজ্জভাবে হিন্দি চাপিয়ে দিচ্ছে’। বিজেপি হিন্দি দিবস উদযাপন করলেও কেন্দ্রের ক্ষমতাসীন এই দলটি অন্যান্য ভাষার ক্ষেত্রে তেমনটি করে না। এম কে স্টালিন বলেন, ‘হিন্দির প্রতি যে গুরুত্ব দেখানো হয়েছে তা কেবল অন্যান্য ভাষাকে উপেক্ষাই করে না বরং তাদের ধ্বংস করার মতোই কাজ।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা কোনও ভাষার শত্রু নই। কেউ নিজের স্বার্থে যতগুলো ইচ্ছা ভাষা শিখতে পারে। একইসময়ে, আমরা কিছু চাপিয়ে দেওয়ার যেকোনও পদক্ষেপের বিরোধিতা করব।’

স্ট্যালিন বলেন, বেশ কয়েকটি হিন্দি বিরোধী আন্দোলনের পর সাবেক মুখ্যমন্ত্রী সিএন আন্নাদুরাই তামিল এবং ইংরেজির মাধ্যমে টু ল্যাঙ্গুয়েজ ফরমুলা নিশ্চিত করার জন্য আইন প্রণয়ন করেছিলেন। টু ল্যাঙ্গুয়েজ ফরমুলা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘ভাষা শহীদদের আত্মত্যাগ যেন বৃথা না যায় তা নিশ্চিত করার জন্যই আন্না এটা করেছিলেন।’

Related Articles

Stay Connected

22,878FansLike
3,682FollowersFollow
20,500SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles